ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ

সেনাকল্যাণের ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে দরবার অনুষ্ঠিত

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ১৭:৩৯, ৩০ জুন ২০১৬   আপডেট: ১৮:১৭, ৩০ জুন ২০১৬

দরবারে বক্তব্য রাখছেন সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ফিরোজ হাসান, এনডিইউ, পিএসসি   ছবি: নিউজওয়ান২৪.কম

দরবারে বক্তব্য রাখছেন সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ফিরোজ হাসান, এনডিইউ, পিএসসি ছবি: নিউজওয়ান২৪.কম

ঢাকা: বৃহস্পতিবার (৩০ জুন ২০১৬) সেনা কল্যাণ সংস্থা (এসকেএস) পালন করলো সংস্থার ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। এ উপলক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানের প্রধান কার্যালয় রাওয়া কমপ্লেক্সের ঈগল হলে এক দরবার অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল সাড়ে দশটায় শুরু হওয়া দরবারে সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ফিরোজ হাসান, এনডিইউ, পিএসসি সভাপতিত্ব করেন।

দরবারে আরও উপস্থিত ছিলেন কমোডর এসএম কামরুল হক, (এল), এনডিইউ, পিএসসি, বিএন, মহাপরিচালক রিসার্চ অ্যান্ড আইটি ডিভিশন (এসকেএস), এয়ার কমোডর এসএম শাহনেওয়াজ, বিপিপি, এনডিসি, পিএসসি, মহাপরিচালক (কল্যাণ, এসকেএস), ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ছিদ্দিকুল আলম শিকদার, বিএসপি, এনডিসি, পিএসসি, মহাপরিচালক বিজনেস ডিভিশন-৩ (এসকেএস), ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নূরুল আজিম, এনডিসি, পিএসসি, মহাপরিচালক রিয়েল এস্টেট ডিভিশন (এসকেএস), ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জহিরুল ইসলাম, পিএসসি, মহাপরিচালক বিজনেস ডিভিশন-২(এসকেএস), ব্রিগেডিয়ার জেনারেল গোলাম ফারুক, পিএসসি, মহাপরিচালক বিজনেস ডিভিশন-১ (এসকেএস), ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামাল মাহমুদ ছিদ্দিক, পিএসসি, মহাপরিচালক বিজনেস ডিভিশন-৪ (এসকেএস) সহ সশস্ত্র বাহিনীর ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তা এবং সেনা কল্যাণ সংস্থার সকল স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠার পর হতে অদ্যাবধি সেনা কল্যাণ সংস্থা গৃহীত ব্যাপক কল্যাণমূলক কার্যক্রমের বিবরণী তুলে ধরা হয়।

সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল ফিরোজ হাসান উপস্থিত সবাইকে অবহিত করেন যে, কল্যাণমূলক কার্যক্রমের অংশ হিসাবে সেনাকল্যাণসংস্থা এযাবত ৫,৩৯,০৭৪ জন বিভিন্ন স্তরের শিক্ষার্থীকে শিক্ষামূলক বৃত্তি প্রদান, ৪৫,১০৫ জনকে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান, ২,২৮,৬২৮ জনকে বিভিন্ন বিষয়ে কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রদান, ৮৬,৩৭৫ জনকে দুঃস্থ ভাতা প্রদান, ২২,৯১৮ জনকে বয়স্কভাতা প্রদান, ৮৮ জনকে সিএসআর (কর্পোরেট সেশ্যাল রেসপন্সিবিলিটি) এর আওতায় অর্থ প্রদান করেছে।

এসময় উল্লেখিত মহতী কার্যক্রমসমূহে অংশ গ্রহণ/সহায়তা করার লক্ষ্যে সেনা কল্যাণ সংস্থার পণ্য সমূহ যেমন এলিফ্যান্ট ব্র্যান্ড সিমেন্ট, অ্যাংকর, ডায়মন্ড ও ফৌজি ব্র্যান্ডের আটা, ময়দা, সুজি, এসকেইআই ট্রান্সফরমার, হাবিব ফ্যান, সেনা ড্রিংকিং ওয়াটার, সেনা এলপি গ্যাস, এসকেসিডি অ্যাপার্টমেন্ট, কনসল মোজা ব্যবহারে দেশের সব শ্রেণির জনগণকে এগিয়ে আসার আহবান জানান এসকেএস চেয়ারম্যান।

উল্লেখ্য, কল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠান হয়েও সরকারি কোষাগারে শতভাগ আয়কর প্রদান করে থাকে সেনা কল্যাণ সংস্থা (এসকেএস)।

নিউজওয়ান২৪.কম/আরএম

আরও পড়ুন
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত