ঢাকা, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
সর্বশেষ:
আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

বাংলাদেশের উন্নয়ন বিষয়ে পাকিস্তানি পত্রিকায় কলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক 

প্রকাশিত: ০৯:০৩, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত


বাংলাদেশের তুলনায় প্রায় সবক্ষেত্রে পাকিস্তান পিছিয়ে আছে বলে পাকিস্তানের অন্যতম প্রভাবশালী ইংরেজি দৈনিক দ্য নিউজে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে। 

শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) পত্রিকাটির বিজনেস পেজে মতামত হিসেবে লেখাটি প্রকাশ করা হয়েছে। কলামটির শিরোনাম ‘অ্যা স্টোরি অব নেগলেট’।

কলামে মনসুর আহমদ লিখেছেন, অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য সামাজিক ক্ষেত্রে বিনিয়োগ গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশ এক্ষেত্রে উদাহরণ। বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় পাকিস্তানের চেয়ে বেশি এবং দেশটির অর্থনীতি ভারতের পর সবচেয়ে দ্রুত বর্ধমান। অন্যদিকে গত দুই বছর ধরে আমাদের (পাকিস্তানের) মাথাপিছু আয় কমছে। এমনকি আফগানিস্তানের চেয়েও আমাদের কম।

শিক্ষা ক্ষেত্রে বাংলাদেশের উন্নতির বর্ণনা দিয়ে পাকিস্তানি লেখক বলেন যে, এই অঞ্চলে প্রাথমিকে তালিকাভুক্তির হার বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি। আর আমাদের সবচেয়ে কম। ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের হারও পাকিস্তানে সবচেয়ে বেশি। স্বাস্থ্য ব্যবস্থার পার্থক্য তুলে ধরে লেখক বলেছেন, আমাদের বেশি চিকিৎসক, নার্স এবং ক্লিনিক বেশি থাকলেও বাংলাদেশিরা পাকিস্তানিদের চেয়ে গড়ে তিন বছর বেশি বাঁচে। পাকিস্তানের তুলনায় বাংলাদেশে শিশুমৃত্যু অর্ধেক। আবার বাংলাদেশ পোলিও মুক্ত দেশ। আর আমরা বিশ্বের  সেই দুই দেশের একটি, যেখানে এখনো পোলিও আছে। সম্প্রতি নাইজেরিয়াকেও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা পেলিও মুক্ত ঘোষণা করেছে।

নারীদের অগ্রযাত্রার কথা তুলে ধরে লেখাটিতে বলা হয়েছে, এই অঞ্চলের অধিকাংশ দেশের তুলনায় বাংলাদেশ নারীদের উন্নতির জন্য বেশি পদক্ষেপ নিয়েছে। তাদের জন্য ক্ষুদ্র ঋণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তারা সফল পরিবার পরিকল্পনা প্রোগ্রামের মাধ্যমে শুধু গর্ভধারণই কমায়নি, নারীদের জীবনমানেও পরিবর্তন এনেছে। লিঙ্গ সমতার ক্ষেত্রে পাকিস্তানের পরিকল্পনাকারীরা আন্তরিকতাহীন কাজের মূল্য দিচ্ছে। এই অঞ্চলে আমাদের জনসংখ্যা বৃদ্ধি হার সবচেয়ে বেশি। ১৯৯০সালর দিকে টেক্সটাইল ইন্ড্রাসটি চালু করা বাংলাদেশে এখন ৮০ শতাংশ কর্মী নারী। এটি তাদের আয় এবং জীবনমান দুটোরই উন্নতি করেছে। বাংলাদেশের নারীরা এখন পারিবারিক সুস্থতা রক্ষায় এবং সন্তানদের লেখাপড়ায় অনেক অর্থ খরচ করেন। কিন্তু পাকিস্তানে এই চিত্র ঠিক উল্টো।

বাংলাদেশের নীতি-নির্ধারকদের প্রশংসা করে কলামের শেষে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ প্রমাণ করেছে ব্যাপক উন্নতির জন্য দেরি করা সাজে না। নীতি-নির্ধারকদের কমিটমেন্টই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

‘দৈনিক দ্য নিউজ’ পাকিস্তানের সবচেয়ে প্রভাবশালী ইংরেজি পত্রিকা বলে দাবি করে থাকে। পত্রিকাটির দৈনিক ১ লাখ ৪০ হাজার সার্কুলেশন হয়।

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত