ঢাকা, ০৪ জুলাই, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

প্রধানমন্ত্রী ‘কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন করবেন আজ

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:১৮, ১৬ অক্টোবর ২০১৯  

কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস। ছবি: সংগৃহীত

কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস। ছবি: সংগৃহীত

কুড়িগ্রাম-ঢাকা রুটে চালু হচ্ছে আন্তঃনগর ‘কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস’। আজ বুধবার সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ট্রেনটি উদ্বোধন করবেন। রংপুর ও কুড়িগ্রামের দাবির প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী সেই দাবি বাস্তবায়ন করছেন।

আরে এরইমধ্যে রংপুর ও কুড়িগ্রামবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ হতে যাচ্ছে আজ। 

সর্বশেষ ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কুড়িগ্রাম সফরে কুড়িগ্রাম-ঢাকা রুটে আন্তঃনগর ট্রেন চালুর দাবি জানায় জেলার মানুষ। তাদের দাবি বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রীও। অবশেষে সত্যি হচ্ছে উত্তরাঞ্চলের এ জেলার লাখো মানুষের স্বপ্ন।

কুড়িগ্রাম রেল-নৌ যোগাযোগ ও পরিবেশ উন্নয়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার রায় জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের উদ্যোগ নিয়েছেন। আমরা অনেক আনন্দিত।

কুড়িগ্রামের স্টেশনের মাস্টার কবিল উদ্দিন জানান, স্বাধীনতার পর থেকে এ জেলায় রমনা মেইল নামে কুড়িগ্রাম থেকে পার্বতীপুরগামী একটি লোকাল ট্রেন চলাচল করছে। আন্তঃনগর সেবা পেতে এখানকার মানুষকে যেতে হত রংপুরে। এখন নিজ জেলা থেকেই এ সেবা পাবে কুড়িগ্রাবাসী।

তিনি জানান, আন্তঃনগর কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস কুড়িগ্রাম থেকে সকাল ৭টা ২০মিনিটে ছাড়বে। এরপর রংপুর, বদরগঞ্জ, পার্বতীপুর, জয়পুরহাট, শান্তাহার, মাদনগর, বিমানবন্দর হয়ে রাজধানীর কমলাপুর স্টেশনে পৌঁছবে। আবার রাত ৮টা ৪৫মিনিটে কমলাপুর থেকে একই রুটে কুড়িগ্রাম পৌঁছবে।

স্টেশন মাস্টার আরো জানান, ট্রেনটি বুধবার ছাড়া সপ্তাহে ছয়দিন চলবে। এতে ছয়শ আসন থাকবে। এরমধ্যে কুড়িগ্রামের জন্য বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ১৪৪টি। টিকেটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে শোভন চেয়ার ৫১০ টাকা, এসি চেয়ার ৯৭২ টাকা, এসি সিট এক হাজার ১৬৮ টাকা।

কুড়িগ্রাম ডিসি সুলতানা পারভীন বলেন, আন্তঃনগর কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেসের উদ্বোধন উপলক্ষে আমরা সব প্রস্তুতি নিয়েছি। এরই মধ্যে ট্রেনটি কুড়িগ্রাম স্টেশনে পৌঁছেছে। ১৭ অক্টোবর থেকে কুড়িগ্রাম-ঢাকা রুটে বাণিজ্যিকভাবে চলবে ট্রেনটি।

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত