ঢাকা, ০৪ আগস্ট, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

২ বছরে তৃতীয়বার গিনেস বুকে মাগুরার ফয়সাল

প্রকাশিত: ১৩:১১, ১৭ আগস্ট ২০১৯  

মাহমুদুল হাসান ফয়সাল                            ফাইল ফটো

মাহমুদুল হাসান ফয়সাল ফাইল ফটো

বাস্কেটবল নিয়ে কসরৎ দেখিয়ে তৃতীয়বারের মতো গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস-এ নাম লিখিয়েছেন মাগুরার তরুণ মাহমুদুল হাসান ফয়সাল। ‘মোস্ট নেক ক্যাচেস ইভেন্ট’-এ ফয়সাল এক মিনিটে ৩৪ বার বাস্কেটবল ছুঁড়ে দিয়ে আবার ঘাড়ে লুফে নিয়েছেন। এর আগের রের্কডটি ছিল এক মিনিটে ২৭ বার।

নিজের এই সাফল্য সম্পর্কে ফয়সাল জানান, গত ৩ মে তার ওই কসরত রেকর্ড করা হয়। বৃহস্পতিবার রাতে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস কর্তৃপক্ষ তাকে মেইল করে রেকর্ডের স্বীকৃতি দেওয়ার কথা জানায়। একই সঙ্গে গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসেও ফয়সালের নয়া রেকর্ডের বিষয়টি প্রকাশ করা হয়েছে। গিনেস বুকে আরও দুটি রেকর্ড লেখা রয়েছে ১৭ বছর বয়সী বাংলাদেশি তরুণ ফয়সালের নামে।

‘মোস্ট ফুটবল আর্ম রোলস’ ইভেন্টে এক মিনিটে ১৩৪ বার দুই হাতের ওপর দিয়ে ফুটবল ঘুরিয়ে এনে ২০১৮ সালের আগস্টে প্রথমবারের মতো গিনেস বুকে নাম লেখান ফয়সাল।

এরপর ‘মোস্ট বাস্কেটবল আর্ম রোলস’ ইভেন্টে স্বীকৃতি আসে চলতি বছরের ৬ জানুয়ারি। এক মিনিটে ১৪৪ বার দুই হাতের ওপর দিয়ে বাস্কেটবল ঘুরিয়ে তিনি তাক লাগিয়ে দেন সবাইকে।
অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য সোহেল রানার দুই ছেলেমেয়ের মধ্যে ছোট সন্তান ফয়সাল মাগুরা পলিটেকনিক ইনাস্টিটিউটে পড়ছেন। আগামীতে আরও নতুন-নতুন রের্কড গড়ার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ফ্রি স্টাইলার ফুটবল চ্যাম্পিয়ানশিপে অংশ নেওয়ার স্বপ্ন দেখেন তিনি।

মাগুরা সদরের হাজিপুর গ্রামের সন্তান ফয়সাল বলেন, ছোটবেলা থেকেই ঝোঁক ছিল খেলাধুলার প্রতি। ইচ্ছা ছিল ভালো ফুটবলার অথবা ক্রিকেটার হবার। কিন্তু সফলতা আসেনি। সে কারণে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি ফ্রি স্টাইলার ফুবলার হওয়ার চিন্তা মাথায় আসে।

এরপর ২০১৭ সাল থেকে বাড়ির আঙ্গিনা আর স্থানীয় মাঠে ফুটবল নিয়ে শুরু হয় ফয়সালের অনুশীলন। পরের বছরই ধরা দেয় প্রথম সাফল্য। দুই বছর সময়ের মধ্যে তিনবার গিনেস রেকর্ডে নাম লেখানো ফয়সাল আরও বড় সাফল্যের জন্য সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা আশা করছেন। [সৌজন্য: বিডিনিউজ২৪.কম]
নিউজওয়ান২৪.কম/এসএমএস

ইত্যাদি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত