ঢাকা, ২১ আগস্ট, ২০১৯
সর্বশেষ:
ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণে একটি সমন্বিত পদক্ষেপ খুবই জরুরি

স্রষ্টা সব জিনিস নিয়ন্ত্রণ করছেন: নিউটন

ইত্যাদি ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:০৮, ২৮ জুলাই ২০১৯  

বিজ্ঞানী নিউটন ছিলেন একজন ধর্মানুরাগী ব্যক্তি (ফাইল ছবি)

বিজ্ঞানী নিউটন ছিলেন একজন ধর্মানুরাগী ব্যক্তি (ফাইল ছবি)

বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী এবং শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানীদের তালিকা করলে নিউটনের নাম যে প্রথম সারিতে থাকবে এতে সন্দেহের কোনো অবকাশ নেই। 

তিনি একাধারে পদার্থবিজ্ঞানী, গণিতবিদ, জ্যোতির্বিজ্ঞানী, দার্শনিক এবং আলকেমিস্ট হিসেবে পরিচিত ছিলেন।

জন্ম: স্যার আইজ্যাক নিউটন ১৬৪৩ সালের ৪ জানুয়ারি ইংল্যান্ডের লিনকনশায়ারের উলসথোর্পে জন্মগ্রহণ করেন।

নিউটনের বাবার নামও ছিল আইজ্যাক নিউটন। তিনি পেশায় একজন কৃষক ছিলেন। নিউটনের জন্মের তিন মাস পূর্বেই তার বাবা মারা যায়।

নিউটনের বিখ্যাত আবিষ্কারসমূহ:

(১) নিউটন ক্যালকুলাসের উদ্ভাবক ছিলেন। যদিও বিষয়টি নিয়ে পরে অনেক বিতর্কের সৃষ্টি হয়।

(২) নিউটন সর্বপ্রথম প্রিজমের মাধ্যমে পরীক্ষা চালিয়ে আলোর প্রতিসরণের সূত্র আবিষ্কার করেন।

(৩) নিউটন সবচেয়ে বিখ্যাত আবিষ্কার হল সর্বজনীন মহাকর্ষ এবং গতির তিনটি সূত্র প্রদান।

(৪) পৃথিবী সম্পূর্ণ গোলকার নয় বরং মেরু অঞ্চলে কিছুটা চাপা এই বাণীটি নিউটনই সর্বপ্রথম প্রদান করেন।

(৫) দ্বিপদ রাশির সার্বজনীন সূত্র আবিষ্কার করেন।

(৬) প্রতিফলন টেলিস্কোপ আবিষ্কার করেন 

নিউটন সম্পর্কে কয়েকটি মজার তথ্য:

(১) শিশু হিসেবে নিউটনের বেঁচে থাকা ছিল অপ্রত্যাশিত। মাতৃগর্ভে নির্দিষ্ট সময় পূর্ণ হওয়ার পূর্বেই তিনি জন্মগ্রহণ করেন এবং এটা ছিল প্রায় ১১ থেকে ১৫ সপ্তাহ আগে। তার মা বলেছিলেন সে এতই ছোট ছিল যে একটা কোয়ার্ট আকারের কাপের মধ্যে তাকে রাখা যেত।

(২) বিজ্ঞানী হওয়া সত্ত্বেও নিউটন ছিলেন একজন ধর্মানুরাগী ব্যক্তি। তিনি বলেন, ‘মাধ্যাকর্ষন ব্যাখা করে গ্রহগুলো কীভাবে ঘুরছে কিন্তু মাধ্যাকর্ষন এটা বাখ্যা করতে পারে না যে, কে গ্রহগুলোকে গতিশীল রাখছে। স্রষ্টা সব জিনিস নিয়ন্ত্রণ করছেন এবং তিনি জানেন সবকিছু কীভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হয়।’

(৩) নিউটনের বাবা ছিলেন একজন কৃষক তাই নিউটনের মায়ের ইচ্ছা ছিল সেও বড় হয়ে কৃষক হবে। কিন্তু নিউটন বিষয়টি মোটেও পছন্দ করতেন না।

(৪) ২০০২ সালের গিনেজ ওয়াল্ড রেকর্ড অনুসারে বিশ্বের সবচেয়ে মূল্যবান দাঁতটি ছিল নিউটনের। ১৮১৬ সালে লন্ডনের এক সম্ভ্রান্ত ব্যক্তি ৩৬০০ ডলারের বিনিময়ে দাঁতটি ক্রয় করে নেন। বাংলাদেশি টাকায় যা ছিল প্রায় ২ লক্ষ ৯০ হাজার টাকা।

(৫) নিউটন সম্পর্কে যে গল্পটি সবচেয়ে বেশি প্রচলিত তা হরো একদা নিউটন একটি আপেল গাছের নিচে বসে ছিল এসময় হঠাৎ একটি আপেল তার মাথার ওপর পড়ল। এটি নিয়ে চিন্তা করতে গিয়ে তিনি মাধ্যাকর্ষণ সম্পর্কে তার বিখ্যাত তত্ত্ব প্রদান করেন।

আসল ঘটনাটি ছিল নিউটন তার বাসার জানালা দিয়ে বাহিরে তাকিয়ে ছিলেন এ সময় তিনি গাছ থেকে একটি আপেল পড়তে দেখলেন এবং উপলব্ধি করেছিলেন যে এটা সম্ভবত সেই একই অদৃশ্য শক্তি যা আপেলের পতন এবং চাঁদের ঘূর্ণনের জন্য দায়ী।

(৬) ১৬৬৫ সালে যখন ক্যামব্রিজে প্লেগ আঘাত হানে তখন নিউটন এবং তার সহপাঠীরা প্লেগ থেকে রক্ষা পাবার জন্য বাসায় লুকিয়ে থাকে। আর এটা ছিল ওই দিনগুলো যখন নিউটন ক্যালকুলাসের মতো কঠিন জিনিস আবিষ্কার করেন।

(৭) নিউটন অ্যালকিমি শাস্ত্রের (অপকৃষ্ট ধাতুকে কীভাবে সোনায় রূপান্তরিত করা যায় তাই ছিল এই শাস্ত্রের প্রদান লক্ষ্য) প্রতি খুব আগ্রহী ছিলেন। তিনি এই বিষয়ের ওপর প্রায় ১৬৯টি বই লিখেছেন কিন্তু তার জীবদ্দশায় কোনটিই প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি। কারণ, সে সময়ের আইন অনুযায়ী সোনা ও রুপা তৈরি করা ছিল গুরুতর অপরাধ।

মৃত্যু:স্যার আইজ্যাক নিউটন ১৭২৭ সালের ৩১ মার্চ ইংল্যান্ডের লন্ডনের কেনসিংটনে মৃত্যুবরণ করেন। লন্ডনের ওয়েস্টমিনিস্টার অ্যাবেতে তাকে সমাহিত করা হয়। মৃত্যুর সময় তার বয়স ছিল ৮৪ বছর।

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

ইত্যাদি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত