ঢাকা, ২১ আগস্ট, ২০১৯
সর্বশেষ:
ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণে একটি সমন্বিত পদক্ষেপ খুবই জরুরি

লা-জওয়াব হয়ে যাবেন

শরীর নিয়ে চমকানো সব তথ্য

নিউজওয়ান স্পেশাল ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৩৪, ৪ আগস্ট ২০১৯  

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

কথায় বলে শরীরের নাম মহাশয় যাহা সহাবে তাহাই সয়! আসলেও কি তাই? এর সত্যাসত্য যাচাইয়ে তর্কে না গিয়ে শুধু আপনাকে এটুকু বলতে পারি নির্দ্বিধায়- আপনার শরীরটা হচ্ছে দুনিয়ার সর্বশ্রেষ্ঠ আশ্চর্য্য এক যন্ত্র! সন্দেহ হচ্ছে? ঠিক আছে, চিকিৎসাবিজ্ঞানী আর শরীরতত্ত¡বিদদের বরাত দিয়ে এরপর যা লেখা হচ্ছে তা অনুগ্রহ করে পড়ে নিন। প্রিয় পাঠক, শুধু বলতে পারি- হয়তো প্রথমত বিশ্বাস করবেন না, কিন্তু যাচাই করে যখন নিশ্চত হবেন, তখন আমরা নিশ্চিত- আপনি লা-জওয়াব হয়ে যাবেন।

ওজন বাড়া
যদি আপনার ওজন আধা কেজিও বেড়ে যায় তাহলে তার সঙ্গে তাল রক্ষা করতে আপনার শরীর ১১ কিলোমিটার লম্বা রক্তনালী তৈরি করে। এর সরল অর্থ শরীরে রক্ত চলাচলে সমন্বয় আনতে ওই ১১ কিলোমিটার রক্তনালীর জন্য আপনার শরীরকে আরো বেশি পরিশ্রম করতে হয়। এর অবশ্যম্ভাবী ফল হলো আপনার হৃদপিণ্ডের ওপর চাপ বেড়ে যায়। এক্ষেত্রে একটি ভাল খবর হচ্ছে যদি আপনি ওজন আধা কিলো সময়মত কমিয়ে ফেলতে পারেন, তাহলে অপ্রয়োজনে সৃষ্ট (!) ওই রক্তনালীগুলোও মারা যায় (মিলিয়ে যায়)।

শরীরে অণুর সংখ্যা কত?
যদি প্রশ্ন করা হয় আমাদের শরীরে অণুর সংখ্যা কত? যদি এই সংখ্যাটা আগে থেকে না জেনে থাকেন, তাহলে আপনি নিশ্চিত তাজ্জব হবেন উত্তর জেনে। একজন পূর্ণবয়ষ্ক মানুষের শরীরে ৭,০০০,০০০,০০০,০০০,০০০,০০০,০০০,০০০,০০০ (৭ অক্টাটিলিয়ন) অ্যাটম বা অণু থাকে।  ১ অক্টাটিলিয়ন = ১০০০ ট্রিলিয়ন ট্রিলিয়ন।

সবচেয়ে বড় ক্রোমোজম
আমাদাদের শরীরে সবচেয়ে বড় মলিকিউল হচ্ছে ক্রোমোজম-১। এতে ১০ লাখ অ্যাটম বা অনু থাকে। সাধারণ মানুষের কোষে ২৩ জোড়া ক্রোমোজম থাকে। এরমধ্যে ক্রোমোজম-১ হচ্ছে সব থেকে বড়।

সীসাও গলে যায় কিন্তু গলে না পরিপাকতন্ত্র!
মানুষের পরিপাকতন্ত্রে যে অ্যাসিড থাকে তার তেজ এত কড়া যে তা দস্তাও গলিয়ে ফেলতে পারে। প্রশ্ন উঠতে পারে- তাহলে আমাদের নাড়ি-ভুড়ি তাতে গলে যায় না কেন? এই ভয়াবহ ঘটনাটা ঘটে না, কারণ, পরিপাকতন্ত্রের ভেতরে অবিরত নতুন কোষকলা তৈরি হতে থাকে। এগুলো এত দ্রুত গতিতে সৃষ্টি হতে থাকে যে পরিপাকতন্ত্রকে গলানোর সময়ই পায় না এর অভ্যন্তরে থাকা অ্যাসিড।  
দিনে ১ লাখ বার
আমাদের চোখের পিউপিল দিনে এক লাখ বার নড়াচড়া করে। যদি আপনি আপনার পা গুলোকে এ অনুপাতে নড়াচড়া করান, তাহলে আপনাকে দিনে ৮০ কিলোমিটার পথ হাঁটতে হবে।

হাড়ের শক্তি কত?
চমকে দেয়ার ক্ষেত্রে আমাদের দেহের হাড়-ও কম যায় না। আমাদের হাড় এতটাই মজবুত যে প্রতি ঘন ইঞ্চির ওজন সহন ক্ষমতা হচ্ছে ৮৬৬ টন।

সবচেয়ে বড় অঙ্গ
আমাদের দেহের সবচেয়ে বড় অঙ্গ হচ্ছে ত্বক (চামড়া)। এর আয়তন প্রায় ২০ বর্গফুট। এর আরেকটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটা বিরামহীন বদলাতে থাকে। একজন মানুষ তার জীবনকালে গড়ে ১৮ কেজি ত্বক পরিবর্তন করে থাকে।

৬ মাসে পুরো দুনিয়া আবাদ
একজন প্রাপ্তবয়ষ্ক পুরুষের অণ্ডকোষে দৈনিক গড়ে ১০ লাখ স্পার্ম সেল বা শুক্রাণু তৈরি হয়। অর্থাৎ এর প্রতিটি যদি নিষিক্ত হয়ে সন্তান উৎপাদন করতে পারতো তাহলে আমাদের পৃথিবীর মত একটি পৃথিবী মানুষে ভরে দিতে একজন পুরুষের সময় প্রয়োজন হবে মাত্র ৬ মাস।

সিনেমা মিথ্যা তথ্য দেয়
কোনো কোনো সাইন্স ফিকশন সিনেমায় দেখানো হয়- স্পেসস্যুটিবহীন কোনও মানুষকে মহাশূন্যে ছেড়ে দিলে মহাজাগতিক প্রচণ্ড চাপে তার শরীর বিষ্ফোরিত হয়ে হয়ে যায়। এটা বিজ্ঞানসম্মত নয়, রীতিমত গাঁজাখোরি কাণ্ড বৈ নয়। মানুষের শরীর এতটাই চাপসহন ক্ষমতাসম্পন্ন যে সে ধরনের পরিস্থিতিতে তা ফাটার সম্ভাবনা নেই। তেবে হ্যাঁ, মহাশূন্যে ওভাবে কাউকে ছেড় দিলে অক্সিজেনের অভাবে তার  নিশ্চিত মৃত্যু হতে পারে।

৫ মিনিটে ঘুম!
যদি বিছানায় শোওয়ার ৫ মিনিটেই ঘুমিয়ে পড়েন তাহলে বুঝতে হবে আপনার ঘুম যাকে বলে আরামের নিদ্রা, তা পুরোপুরি হচ্ছে না। শরীর স্বাভাবিক পন্থায় ঘুমিয়ে পড়ার পরিস্থিতিতে পৌঁছতে ১০-১৫ মিনিট সময় লাগে। এর কম সময় লাগলে বুঝতে হবে আপনার শরীরের প্রয়োজনীয় ঘুম হচ্ছ না।     
সূত্র: নবভারত টাইম্স
 

ইত্যাদি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত