ঢাকা, ২১ আগস্ট, ২০১৯
সর্বশেষ:
ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণে একটি সমন্বিত পদক্ষেপ খুবই জরুরি

রাজধানীতে হাট জমবে শুক্রবার থেকে

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৩১, ৮ আগস্ট ২০১৯  

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে রাজধানীর দুই সিটি করপোরেশনের ২৩ স্থানে ইতোমধ্যেই বসেছে পশুর হাট। তবে ঈদের ছুটি শুরু না হওয়ায় এখনও জমে উঠেনি হাট। 

ক্রেতা-বিক্রেতারা বলছেন শুক্রবার থেকে পুরোদমে জমে উঠবে হাটের বেচাকেনা। 

দেশের বিভিন্ন স্থান থেকেই ঢাকার হাটগুলোতে কোরবানির পশু আনছেন ব্যবসায়ীরা। তবে বেচা-কেনা তেমন জমে না উঠায় অনেকটা অবসর আর পশুর যত্নেই ব্যস্ত সময় পার করছেন ব্যাপারিরা।

রাজধানীর পুরান ঢাকার অন্যতম বড় পশুর হাট ধোলাইখাল ঘুরে দেখা যায়, হাটে প্রচুর সংখ্যক গরু উঠেছে। এছাড়া ছাগল ও উঠেছে এই হাটে। জাবেদ নামের এক গরু বিক্রেতা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, অনেকে আসছে, দাম জিজ্ঞেস করে। কিন্তু বেচার দাম বলেনা। বেচার দাম বললেই গরু ছাইড়া দিমু। সেলিম নামের আরেক গরু ব্যবসায়ী বলেন, ক্রেতারা এখনো সঠিক দাম বলছে না। কাল তো শুক্রবার, সবাই হয়ত কাল থেইকা কিনা শুরু করব।

অন্যদিকে হাটে আসা ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ব্যাপারীরা অনেক দাম চাচ্ছে। বিক্রির দাম এখনো বলছে না। গরু হলেই লাখ টাকা দাম চাচ্ছে। এই দামে তো আর বিক্রি করবে না। হাট জমলে তখন দাম ছাড়া শুরু করবে। ক্রেতারাও আশা করছেন শুক্রবার থেকে হাট পুরোদমে জমে উঠবে।      

এদিকে অনেক ব্যবসায়ীদের ধারণা, ঢাকায় পশু রাখার মতো পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় দামে কম পেলেও এখনো পশু কেনায় ক্রেতাদের আগ্রহ কম। ভাটারার সাঈদনগর এবং আফতাবনগরের দুটি হাটে ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শনি ও রবিবার সবচেয়ে বেশি পশু বিক্রি হবে বলে মনে করছেন তারা। 

সাঈদনগর পশুর হাটের ইজারাদার ইকবাল হোসেন খন্দকার বলেন, ‘দু-চারটি গরু বিক্রি হয়েছে। তবে শুক্রবার থেকে পুরোদমে বিক্রি শুরু হবে। প্রতিবছর ঈদের আগের তিন দিন গরু বিক্রি বেশি হয়।’

ব্যবসায়ীরা জানান, ভাটারার সাঈদনগর এবং আফতাবনগরের দুই হাটে পশু উঠতে শুরু করে গত সোমবার থেকে। এই তিন হাটে কোরবানির পশুর মধ্যে গরুর সংখ্যা বেশি। ছাগলসহ অন্য পশুর জন্য আলাদা জায়গা রাখা হলেও এখনো তা খালি। ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তা এবং পশু রাখার উপযোগী ব্যবস্থা আগেই করা হয়েছে। ছোট, বড়, মাঝারি সব ধরনের গরু উঠেছে এই তিন হাটে। ৫০ হাজার থেকে ছয় লাখ টাকা দামের পশু রয়েছে এই তিনটি হাটে।

এছাড়া আফতাব নগর পশুর হাট ঘুরে দেখা যায়, সেখানেও প্রচুর সংখ্যক কুরবানির পশু উঠেছে। তবে হাটে বেচা-কেনা তেমন নেই বললেই চলে। ব্যবসায়ীদের আশা, কাল থেকে ঈদের বন্ধ আবার শুক্রবারও। তাই কাল থেকেই জমে উঠবে হাটের বেচা-কেনা।

এদিকে শুক্র, শনি এবং রবিবার—এই তিন দিন অস্থায়ী পশুর হাট বসানোর অনুমোদন দিয়েছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। আর হাট বসানোর প্রস্তুতির জন্য আরো দুই দিন পেয়েছেন ইজারাদাররা। 

তবে আগস্টের প্রথম দিন থেকেই পশুর হাটগুলোতে গরু, ছাগল, দুম্বা, মহিষসহ অন্য পশু আনা শুরু হয়। পশুর হাটের নির্ধারিত সময়ের আগেই পশু আনা শুরু—এটি জানার পরও সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা কোনো ধরনের ব্যবস্থা নেননি। এ ব্যাপারে দুই সিটি করপোরেশনের সম্পত্তি বিভাগের কর্মকর্তারা মন্তব্য করতেও রাজি হননি।

চলতি বছর ঢাকা দক্ষিণে ১৪টি ও উত্তরে ৯টি মিলিয়ে মোট ২৩টি পশুর হাট বসেছে। দুই সিটি করপোরেশনের সম্পত্তি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, উত্তর সিটির নয়টি হাটের সর্বোচ্চ দর ১৩ কোটি ৪১ লাখ ৯৩ হাজার ৭৮৬ টাকা। আর দক্ষিণ সিটির ১৪টি হাটের সর্বোচ্চ দর আট কোটি ৮৭ লাখ ৫২ হাজার টাকা। 

এছাড়া দুই সিটির ২৩টি পশুর হাট এবার ইজারা দেয়া হয় ২২ কোটি ২৯ লাখ ৪৬ হাজার ৬২৭ টাকায়।

ডিএনসিসির নয় হাটের মধ্যে হলো- উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের এক নম্বর ব্রিজের পশ্চিম অংশে ও দুই নম্বর ব্রিজের পশ্চিমে গোলচত্বর পর্যন্ত সড়কের উভয় পাশের ফাঁকা জায়গা, মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী সড়ক সংলগ্ন (বছিলা) পুলিশ লাইনসের খালি জায়গা, মিরপুর সেকশন-৬, ওয়ার্ড-৬ এর (ইস্টার্ন হাউসিং) খালি জায়গা, ভাটারা (সাঈদনগর) পশুর হাট, মিরপুর ডিওএইচএসের উত্তর পাশের সেতু প্রপার্টি ও সংলগ্ন খালি জায়গার অস্থায়ী পশুর হাট, ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট খেলার মাঠ, বাড্ডার ইস্টার্ন হাউসিং (আফতাবনগর) ব্লক-ই, আফতাবনগর সেকশন-৩ এর খালি জায়গা, কাওলা-শিয়ালডাঙ্গা সংলগ্ন খালি জায়গা।

ডিএসসিসির ১৪ হাটের মধ্যে হল- উত্তর শাহজাহানপুর খিলগাঁও রেলগেট বাজারের মৈত্রী সংঘের মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ঝিগাতলা-হাজারীবাগ মাঠসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, কামরাঙ্গীরচর ইসলাম চেয়ারম্যানের বাড়ির মোড় থেকে দক্ষিণ দিকে বুড়িগঙ্গা নদীর বাঁধসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, শ্যামপুর বালুর মাঠসহ আশপাশের খালি জায়গা, মেরাদিয়া বাজার সংলগ্ন আশপাশ এলাকার খালি জায়গা, ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের সামসাবাদ মাঠ সংলগ্ন আশপাশ এলাকার খালি জায়গা, কমলাপুর স্টেডিয়াম সংলগ্ন বিশ্বরোডের আশপাশের খালি জায়গা, শনির আখড়া ও দনিয়া মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ধূপখোলা মাঠ সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউয়ারটেক মাঠ সংলগ্ন আশপাশ এলাকার খালি জায়গা, আমুলিয়া মডেল টাউনের আশপাশের খালি জায়গা, আফতাবনগর ইস্টার্ন হাউসিং মেরাদিয়া মৌজার সেকশন-১ ও ২, উত্তর শাহজাহানপুর খিলগাঁও রেলগেটের পশুর হাট ও পোস্তগোলা শ্মশানঘাট সংলগ্ন পশুর হাট। 

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত