ঢাকা, ০৩ এপ্রিল, ২০২০
সর্বশেষ:
জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট, মাংসপেশি ও গাঁটে ব্যথাসহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ দেখা দিলে আইইডিসিআরের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। আইইডিসিআরের হটলাইন নম্বর: ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯৩৭১১০০১১ জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

যেভাবে দীর্ঘায়ু পেলেন তিনি...

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৪৩, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

গ্রিনিং চিতেস্তু ওয়াতানাবে- ছবি: সংগৃহীত

গ্রিনিং চিতেস্তু ওয়াতানাবে- ছবি: সংগৃহীত


নিজের বয়স দিয়ে অন্যকে চমকে দেয়ার সাধ্য আছে যার। তেমনই এক ব্যক্তি গ্রিনিং চিতেস্তু ওয়াতানাবে। যার বর্তমান বয়স ১১২ বছর ৩৪৪ দিন। 

বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক পুরুষ মানুষ তিনিই।

যুবক বয়সে পেশায় একজন কৃষক ছিলেন তিনি। নিজের দীর্ঘায়ুর রহস্য হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, ‘কখনো রাগ করা চলবে না, আর সর্বদা মুখে হাসি রাখতে হবে।’ ১৯০৭ সালে উত্তর জাপানের নিইগাতা শহরে জন্মগ্রহণ করেন গ্রিনিং চিতেস্তু ওয়াতানাবে। তিনি গ্রিনিস ওয়ার্ল্ডের তরফ থেকে সার্টিফিকেটও পেয়েছেন।

জাপানের এই বয়স্ক ব্যক্তি জানিয়েছেন, দাঁত না থাকলেও পুডিং এবং ক্রিম পাফ খেতে পছন্দ করেন তিনি। কারণ এই ধরনের খাবারগুলো দাঁত দিয়ে চাবাতে হয় না। এর আগে যে ব্যক্তি বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ছিলেন, তার নাম মাসাজো নোনাকা। তিনিও জাপানেরই নাগরিক ছিলেন। ২০১৯ সালে ১১৩ বছরে মৃত্যু হয় তার।

গ্রিনিং চিতেস্তু ওয়াতানাবে সম্পর্কে বলতে গিয়ে তার বড় ছেলের পুত্রবধূ জানিয়েছেন, ওয়াতানাবেকে তিনি কখনো রাগতে দেখেননি। পাশাপাশি তিনি যথেষ্ট যত্নশীলও। 

অন্যদিকে ওয়াতানাবে নিজের সম্পর্কে বলেছেন, ‘আমি মনে করি, এক ছাদের নীচে একটি বড় পরিবারের সঙ্গে বসবাস করছি, এখানে নাতি-নাতনিরা আমার মুখের হাসি বাঁচিয়ে রেখছে।’ তার এই কথা থেকেই পরিষ্কার তিনি তার নাতি-নাতনিদের কতটা ভালোবাসেন।

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

ইত্যাদি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত