ঢাকা, ১১ নভেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ

হায় জরিপ!

ভারতে ১০ জনে ৭ জনই ধোঁকা দেন স্বামীকে…

প্রকাশিত: ১৩:৪১, ২৪ এপ্রিল ২০১৯  

প্রতীকি চিত্র

প্রতীকি চিত্র

অনেকেই বিস্মত হতে পারেন সাম্প্রতিক এক জরিপ সূত্রে প্রকাশিত তথ্যে। এতে বলা হয়েছে শতকরা ৭০ জন বিবাহিত নারীই তাদের স্বামীকে প্রতারণা করে থাকেন সম্পর্কের ক্ষেত্রে। অর্থাৎ গোপনে অনৈতিক-পরকীয়া সম্পর্কে জড়ান। তবে এই হিসাবটা ভারতের।

তবে জপিরটাকে আপনি গুরুত্ব না দিলেই হয়তো ভাল করবেন। কারণ এটি করেছে এক্সট্রা ম্যারিটাল ডেটিং অ্যাপ অর্থাৎ বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের অ্যাপ গ্লিডেনের করা। এ ধরনের অ্যাপের পুরো বিষয়টায় দুনিয়ার সব দেশের সমাজ-সংস্কৃতিতেই নেতিবাচক মনোভাব রয়েছে। কিন্তু বাস্তব কথা হলো- এ ধরনের ডেটিং অ্যাপ আছে এং তারা তাদের ধ্যান-ধারণাকে মজবুত করতে মনগড়া জরিপ চালাতেও পারে আবার তা প্রকাশও করতে পারে একই স্বার্থে। 
গ্লিডেনের দাবি মতে, জরিপটা চালানো হয়েছে ভারতে। তাতে তারা দেখতে পেয়েছে দশজনের মাঝে সাতজন বিবাহিত নারীই ধোঁকা দিয়ে থাকেন স্বামীদের। এর পেছনের কারণ হিসেবে তারা বলছে, অপছন্দের পাত্রকে বিয়ে করার কারণে বা করতে বাধ্য হওয়ার জের ধরে তারা অবৈধ সম্পর্কে জড়ান।    
ভারতে এই অ্যাপটির ব্যবহারকারীর সংখ্যা  ৫০ লাখের বেশি। নারীরা কেন অবৈধ সম্পর্কে জড়ায় এমন প্রশ্নে গ্লিডেন জরিপ চালায়। এতে দেখা যায় ব্যাঙ্গালোর, মুম্বাই ও কলকতার মতো মেট্রোপলিটান শহরে এ ধরনের নারীর সংখ্যা সর্বোচ্চ যারা স্বামীর সঙ্গে প্রতারণা করছে। 

ওই জরিপের আরো কিছু তথ্য অনেককেই তাজ্জব করে দিতে পারে, বিভ্রান্তিকর মনে হতে পারে। যেমন গ্লিডেন এর মার্কেটিং এস্কপার্ট সলেন পালিত জরিপ সূত্রে জানান, দশজনের মধ্যে ৪ জনই নারী-ই বলেছেন যে তারা বিশ্বাস করেন যে বেগানা পুরুষদের সঙ্গে ‘মজা’ করার ফলে স্বামীদের সঙ্গে তাদের সম্পর্ক অনেক বেশি মজবুত হয়েছে। তার মতে, জরিপে অংশ নেওয়া ২০% পুরুষ আর ১৩% নারী তাদের জীবন-সঙ্গীর প্রতারণা মেনে নেয়। 

গ্লিডেন অ্যাপটির সূচনা হয় ২০০৯ সালে, ফ্রান্সে। এরপর ২০১৭ সালে ভারতে কর্মকাণ্ড শুরু করে তারা। অবাক করা ব্যাপার হচ্ছে মাত্র দুই বছরের মধ্যে দেখা যায় যে এর গ্রাহকসংখ্যার ৩০% দখল করে ফেলেছে ভারতীয়রা। এর মধ্যে আছে ৩৪ থেকে ৪৯ বছর বয়সী বিবাহিত নারীরা। অ্যাপটির মতে, ৭৭% ভারতীয় নারী বলেছেন যে তারা স্বামীদের প্রতাড়িত করছেন এ কারণে যে তাদের বিবাহিত সম্পর্কটা আকর্ষণহীন হয়ে পড়েছে বা বিয়েতে মোহমুক্তি ঘটেছে তাদের।  
নিউজওয়ান২৪.কম/এফএন

ইত্যাদি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত