ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
সর্বশেষ:
আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

জানা জরুরি, জ্বর হলেই করোনা নয় (পর্ব-২)

ডা. আবুল হাসনাৎ মিল্টন

প্রকাশিত: ১০:৪২, ১৬ মার্চ ২০২০  

গরম পানিতে গোসল করলে নভেল করোনাভাইরাসের আক্রমন থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে বলে কারো কারো মনে যে ধারণা জন্মেছে তা সঠিক নয়

গরম পানিতে গোসল করলে নভেল করোনাভাইরাসের আক্রমন থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে বলে কারো কারো মনে যে ধারণা জন্মেছে তা সঠিক নয়


নোভেল করোনা-১৯ ভাইরাস এবং কোভিড-১৯ নিয়ে সাধারণ মানুষের যতটুকু জানা দরকার-

নোভেল করোনা-১৯ ভাইরাস, বৃহত্তর করোনাভাইরাস পরিবারের নতুনতম সদস্য; বিধায় পরিপূর্ণ তথ্য এখনো বিজ্ঞানীরা জানতে পারেননি, তবে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে গবেষণা চলছে।

আরো দেখুন>>> জানা জরুরি, জ্বর হলেই করোনা নয় (পর্ব-১)

কিছু কিছু প্রয়োজনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আমরা ইতোমধ্যে পেয়েছি। পাশাপাশি, অবাধ তথ্য প্রবাহের এই যুগে এই ভাইরাস নিয়ে প্রচুর বিভ্রান্তিকর তথ্যও ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং আশেপাশে ঘুরে বেড়াচ্ছে। যার ফলে মানুষের মধ্যে এক ধরনের বিভ্রান্তির সৃষ্টি হচ্ছে।

যে কোনো রোগের মহামারী নিয়ন্ত্রণে এ ধরণের বিভ্রান্তিকর তথ্য ক্ষতিকর কারণ হয়ে দাঁড়ায়। আজকের এই লেখায় তাই শুরুতেই কিছু ভুল তথ্যের ব্যাপার তুলে ধরছি।

নভেল করোনা-১৯ ভাইরাস সব দেশে, সব অঞ্চলেই ছড়াতে পারে। গরম ও আদ্র জলবায়ুর (Hot and humid climate) এলাকায় ছড়াবে না এমন কোনো কথা নাই। শীত ও তুষারপাতের দেশেও এই ভাইরাস ছড়াতে পারে। শীতের ঠাণ্ডা এই ভাইরাসকে মারতে পারে না। বাইরের আবহাওয়া যাই থাকুক না কেন, সুস্থ মানুষের শরীরের তাপমাত্রা সাধারণত ৩৬.৫ থেকে ৩৭ ডিগ্রী সেলসিয়াসের মধ্যেই থাকে।

গরম পানিতে গোসল করলে নভেল করোনাভাইরাসের আক্রমন থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে বলে কারো কারো মনে যে ধারণা জন্মেছে তা সঠিক নয়। এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, মশার কামড়েও এই ভাইরাস ছড়ায় না। নভেল করোনাভাইরাস ধর্ম-বর্ণ-গোত্র চেনে না, যে কোনো মানুষকেই আক্রমন করতে পারে।

এই কারণে, নভেল করোনাভাইরাস কীভাবে ছড়ায় তা জানা জরুরি। ধারণা করা হয়, গত বছরের ডিসেম্বর মাসে চীনের উহান শহরের কোনো একটা সামুদ্রিক মাছ ও প্রাণীর বাজার থেকে ভাইরাসটি প্রাণীর দেহ থেকে কতিপয় মানুষের দেহে প্রবেশ করেছিল। তারপর থেকে এক মানুষের কাছ থেকে অন্য মানুষের কাছে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে।

যেভাবে ভাইরাসটি মানুষ থেকে মানুষে ছড়াতে পারে:

> সাধারণত এই ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংস্পর্শে এলে
> ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের হাঁচি-কাশিতে ছড়ানো ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র দানার (ড্রপলেটস) সংস্পর্শে এলে
> ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি-কাশি নিঃসৃত ড্রপলেট কোনো বস্তু বা পৃষ্ঠতলে (surface) লেগে থাকলে অন্য কোনো ব্যক্তি যদি তা স্পর্শ করেন এবং পরবর্তীতে ভাইরাসযুক্ত সেই হাত দিয়ে যদি নিজের নাক-চোখ-মুখ স্পর্শ করেন তবে সেক্ষেত্রে ওই ব্যক্তির শরীরে ভাইরাসটি প্রবেশ করতে পারে। সাধারণত কোনো পৃষ্ঠতলে এই ভাইরাসটি কয়েক ঘন্টা থেকে কয়েক দিন পর্যন্ত বাঁচতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নভেল করোনা-১৯ ভাইরাস দ্বারা রোগের নামকরণ করা হয়েছে কোভিড-১৯। কারো শরীরে এই ভাইরাস প্রবেশ করলে কোভিড-১৯ রোগের লক্ষণ প্রকাশ পেতে ২ থেকে ১৪ দিন সময় লাগতে পারে।

কোভিড-১৯ রোগের লক্ষণসমূহ:

এই রোগের সাধারণ লক্ষণসমূহ হলো জ্বর, ক্লান্তি এবং শুকনো কাশি। এছাড়াও কিছু রোগীর ক্ষেত্রে গায়ে ব্যথা, সর্দি, নাক বন্ধ থাকা, গলা ব্যথা বা পাতলা পায়খানা থাকতে পারে। লক্ষণসমূহ সাধারণত মৃদু আকারে শুরু হয় এবং আস্তে আস্তে বাড়তে থাকে। আক্রান্ত রোগীদের শতকরা আশি ভাগই তেমন কোনো চিকিৎসা ছাড়াই সুস্থ হয়ে ওঠেন। তারা লক্ষণভিত্তিত ওষুধ যেমন জ্বরের জন্য প্যারাসিটামল, সর্দি-কাশির জন্য এন্টি হিস্টামিন জাতীয় ওষুধ খেতে পারেন।

আক্রান্ত প্রতি ছয়জনের মধ্যে একজনের অবস্থা জটিল হতে পারে এবং দেহে শ্বাসজনিত জটিলতা হতে পারে। বয়স্ক মানুষ কিংবা যাদের উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, ক্যান্সার জাতীয় অসুখ আছে, তাদের ক্ষেত্রে এই রোগ জটিল হতে পারে। শরীরে নভেল করোনা-১৯ ভাইরাস ঢুকলেই যে একজন কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হবেন, তা সত্যি নয়।

আমাদের মনে রাখা জরুরি, শরীরে এই ভাইরাস প্রবেশ করলেও সবারই শরীরে কোভিড-১৯ রোগের লক্ষণ দেখা যাবে না এবং অনেকেই সুস্থ থাকবেন। চলবে...

লেখক: প্রফেসর, পাবলিক হেলথ বিভাগ, নর্দান ইউনিভার্সিটি ও চেয়ারম্যান, ফাউন্ডেশন ফর ডক্টরস সেইফটি অ্যান্ড রাইটস

নিউজওয়ান২৪.কম/এসজেড

ইত্যাদি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত