ঢাকা, ০২ মার্চ, ২০২৪
সর্বশেষ:

সবধরনের মাছ ধরা নিষেধ পদ্মা-মেঘনায় 

চাঁদপুর সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ১৩:২৪, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো


ইলিশের পোনা ও জাটকা সংরক্ষণে আজ মধ্যরাত থেকে ২ মাস চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনাসহ ৬টি অভয়াশ্রমে সবধরনের মাছ ধরা নিষেধ। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও সরকার মার্চ-এপ্রিল দু’মাস অভয়াশ্রমগুলোতে মাছ ধরার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন।

মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা গোলাম মেহেদী হাসান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সরকারি এমন নিষেধাজ্ঞার কারণে এই সময় জেলেরা নদীতে নেমে মাছ ধরতে পারবেন না। শুধু তাই নয়, অভয়াশ্রম এলাকায় জাটকা ধরা ক্রয়-বিক্রয় এবং বিপন্ন নিষিদ্ধ থাকবে। এমন পরিস্থিতিতে শুধু চাঁদপুরেই বেকার হচ্ছে ৫০ হাজারের বেশি জেলে। তবে সরকারি তালিকায় চাঁদপুরে ৪৪ হাজার ৩৫ জন জেলে রয়েছে। সরকার তালিকাভুক্ত জেলেদের ৪০ কেজি করে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হবে।

চাঁদপুরের মতলব উত্তরের ষাটনল থেকে হাইমচর চর ভৈরবী পর্যন্ত ৭০ কিলোমিটার পদ্মা-মেঘনা নদীতে অভয়াশ্রম চলাকালে কোনো জেলেকেই নদীতে নামতে দেওয়া হবে না। তবে জেলেদের অভিযোগ ৪০ কেজি চাল তারা সঠিকভাবে পাচ্ছেন না। সরকারিভাবে তাদের যে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়। তা পর্যাপ্ত নয়। খাবার তৈরি করতে চালের সঙ্গে অন্যান্য উপকরণও প্রয়োজন হয়।

চাঁদপুর শহরের পুরানবাজার হরিসভা এলাকার কয়েকজন জেলে জানান, ৫০০ টাকা দিলে জেলে কার্ড মিলে। প্রকৃত অনেক জেলে কার্ড পায়নি। অথচ পাশের পান-দোকানি এবং এক রিকশাচালক সেই কার্ড দিয়ে মৌসুমের এই সময় চাল তুলে নিচ্ছেন।

চাঁদপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা গোলাম মেহেদী হাসান জানান, নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন কোনো জেলেকে নদীতে নামতে দেওয়া হবে না। এ সময় তালিকাভুক্ত ৪৪ হাজার ৩৫ জেলেকে প্রতিমাসে ৪০ কেজি করে চাল দেওয়া হবে।

নিউজওয়ান২৪.কম/আরএডব্লিউ 

স্বদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত