ঢাকা, ০১ অক্টোবর, ২০২২
সর্বশেষ:

ভয়ংকর গতিতে ধেয়ে আসছে বড় ধূমকেতু, বিপর্যয়ের আশঙ্কা!

নিউজওয়ান২৪ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৯:৫৯, ৬ আগস্ট ২০২২  

ফাইলে ফটো

ফাইলে ফটো


মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা ভয়ংকর মহাজাগতিক ঘটনার কথা উল্লেখ করেছে। ধেয়ে আসছে কুতুব মিনারের চেয়ে ৬ গুণ বড় এক ধূমকেতু! যেকোনো আকারের ধূমকেতুই পৃথিবীর পক্ষে ভয়ের। কেননা, যে ভরবেগ নিয়ে তারা ছুটে আসে, তাতে পৃথিবীর সঙ্গে ধাক্কা লাগলে কোনো না কোনো বিপর্যয় অবশ্যম্ভাবী।

জানা গেছে সাধারণ আকারের চেয়ে যদি ছুটে আসতে থাকা ধূমকেতুটির আকার ও আকৃতি অনেকটাই বড় হয়, তখন তো বিপদ আরো বেশি। এবার তেমনই এক বিপর্যয়ের আশঙ্কা করা হচ্ছে। কুতুবমিনারের আকারের কোনো ধূমকেতুই পৃথিবীর পক্ষে অনেক ভয়ের, এ তার চেয়েও ৬ গুণ বড়, ফলে সেই আকার ও আকৃতির একটা মহাজাগতিক বস্তু যদি সত্যিই পৃথিবীর উপর আছড়ে পড়ে, তবে আশঙ্কার তো থাকছেই।

প্রায় ১২০০ ফুট বিস্তৃত ৩৬৫ মিটার চওড়া দীর্ঘ আকারের এক অ্যাস্টেরয়েডের কথা উল্লেখ করেছে নাসা। তারা দেখেছে, এটা ভয়ংকর গতিতে ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকে। এমনিতেই গত সপ্তাহে দুটি ভিন্ন আকারের গ্রহাণুর সঙ্গে মুখোমুখি দেখা হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। একটি ছিল ৪০০ ফুট চওড়া, অন্যটি ৬০০ ফুট চওড়া। কিন্তু এ তার চেয়েও ভয়ংকর। কেননা, এর আকার এদের দুগুণ বা তিনগুণ। ৩ আগস্ট এটি পৃথিবীর অনেকটা কাছাকাছি চলে এসেছে। পৃথিবীকে প্রদক্ষিণ করছে এটা। প্রদক্ষিণ করতে করতেই ক্রমশ সামনে চলে আসছে।

বিজ্ঞানীরা বিষয়টিকে এই ভাবে বোঝাচ্ছেন, যে ধূমকেতুটি ধেয়ে আসছে, সেটি আকারে স্ট্যাচু অব লিবার্টির ৩ গুণ। এত বৃহৎ একটি পাথর যেকোনো ভাবেই আসুক না কেন তা যেকোনো সময়েই বিপদের বার্তা বহন করে আনে। এর ওপর এটি আসছে ঘণ্টায় ১,১৫,৮৭২ কিলোমিটার বেগে! এটি হয়তো পৃথিবীর ৬.১ মিলিয়ন কিলোমিটারের মধ্যে আসবে। এবং আপাতভাবে এটিকে খুবই বড় মাপের দূরত্ব বলে মনে হচ্ছে। কিন্তু মহাজাগতিক ব্যাপারের ক্ষেত্রে এটা তেমন কোনো দূরত্বই নয়। তা ছাড়া মহাকায় ধূমকেতুটির ট্র্যাজেকটরিতে যদি কোনো বদল আসে তবে তার পৃথিবীর আরো কাছে চলে আসা আশ্চর্য কী?

নিউজওয়ান২৪.কম/রাজ

মোবাইল-পিসি-টেক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত