ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ

ব্যবসায়ী সাইফুল সাভারে মুক্ত

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৯:৫৫, ৩ মে ২০১৪   আপডেট: ০৭:৫১, ২৪ জুলাই ২০১৫

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে অপহৃত ব্যবসায়ী সৈয়দ সাইফুল ইসলামকে সাভারের নবীনগরে ছেড়ে দিয়েছে অপহরণকারীরা।

পুলিশ ও অপহৃত ব্যবসায়ী পরিবার সূত্র জানিয়েছে, শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে সাভারের নবীনগরে জাতীয় স্মৃতিসৌধের সামনের একটি সড়কে সাইফুল ইসলামকে চোখ ও হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ফেলে রেখে যায় অপহরণকারীরা। খবর পেয়ে পুলিশ ও র‌্যাব সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে নবীনগর র‌্যাব-৪ এর ক্যাম্পে নিয়ে যায়।

র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক জিয়াউল আহসান জানান, “র‌্যাবের একটি দল রাতে অপহরণকারীদের গাড়ি অনুসরণ করছিল। সাভারের স্মৃতিসৌধ এলাকায় পৌঁছালে গাড়ি থেকে তাকে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা।”

এদিকে, মুক্তির পর সাইফুল ইসলাম পুলিশকে বলেছেন, অপহরণের পর তাকে সারা দিন চোখ বাঁধা অবস্থায় গাড়িতে ঘোরানো হয়। এর পর তাকে এক জায়গায় ফেলে দিয়ে যায় অপহরণকারীরা। তিনি এ সময় স্থানীয় লোকজনকে তার পরিচয় ও অবস্থার কথা জানান।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বাসায় ফেরার পথে নিখোঁজ হন সানারপাড়ের সোনামিয়া মার্কেটের সামিয়া সুপার শপের মালিক সাইফুল ইসলাম। পরে দোকানের ম্যানেজার আব্দুল হান্নানের কাছে অপহরণকারীরা মুঠোফোনে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এ ঘটনায় শুক্রবার সকালে অপহৃতের স্ত্রী সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।

সাইফুলকে অপহরণের প্রতিবাদে সিদ্ধিরগঞ্জ সানারপাড় এলাকার ব্যবসায়ীরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। এতে যোগ দেন এলাকার সাধারণ মানুষ। বিক্ষোভের কারণে ঢাকা-চট্টগ্রাম সড়কে সকাল সাড়ে ১১টা থেকে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাকারিয়া নিখোঁজ ব্যবসায়ীকে খুঁজে বের করার আশ্বাস দিলে তিন ঘণ্টার জন্য সড়ক অবরোধ তুলে নেন। কিন্তু সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে অপহৃত ব্যবসায়ীর কোনো খোঁজ না মেলায় ফের বিক্ষোভ শুরু করেন তারা। এ সময় পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ওপর ফাঁকা গুলি ও লাঠিচার্জ করে।  

উল্লেখ্য, রোববার মামলার হাজিরা দিয়ে নারায়ণগঞ্জ আদালত থেকে বের হওয়ার সময় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম ও এক ছাত্রলীগ নেতাসহ ৫ জনকে র‍্যাব পরিচয়ে অপহরণ করে দুর্বৃত্তরা। একই সময়ে নিখোঁজ হন নারায়ণগঞ্জ বারের সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট চন্দন সরকার ও তার গাড়ির চালক ইব্রাহিম। বুধবার শীতলক্ষ্যা নদী থেকে নজরুল ইসলাম, তার গাড়িতে থাকা তাজুল ইসলাম,  মনিরুজ্জামান স্বপন ও লিটন, আইনজীবী চন্দন সরকার এবং তার গাড়িচালক ইব্রাহিমের লাশ উদ্ধার করা হয়। গতকাল সকালে একই স্থান থেকে নজরুলের গাড়ির ড্রাইভার জাহাঙ্গীরের লাশ উদ্ধার করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০৯২১ ঘণ্টা, ০৩ মে, ২০১৪

আরএ/

আরও পড়ুন
স্বদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত