ঢাকা, ০৭ আগস্ট, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

পৃথিবীতে চীনের ফ্রি ইন্টারনেট!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:৫১, ৩০ নভেম্বর ২০১৮  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

 

টেকনোলজি জায়ান্ট গুগল ও স্পেসএক্সকে টেক্কা দিতেই স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী ফ্রি ওয়াইফাই সেবা দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে চীনের একটি প্রতিষ্ঠান লিঙ্কশিওর নেটওয়ার্ক। 

মঙ্গলবারে মেগা এই প্রকল্প উন্মোচন করা হয়েছে। প্রকল্পের আওতায় বিশ্বব্যাপী নিরবিচ্ছিন্ন ইন্টারনেট সেবা দিতে ২৭২টি স্যাটেলাইট নিক্ষেপের প্রকল্প হাতে নিয়েছে লিঙ্কশিওর নেটওয়ার্ক।

এসব স্যাটেলাইটের সাহায্যে ২০২৬ সালের মধ্যেই সারাবিশ্বে ফ্রি ওয়াইফাই ইন্টারনেট দেবে চীনা প্রতিষ্ঠানটি। 

চীনের রাষ্ট্র-নিয়ন্ত্রিত চায়না ডেইলি বৃহস্পতিবার এ খবর দিয়েছে।

বিনামূল্যে ইন্টারনেট মোবাইল সেবা দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে ২০১৩ সালে লিঙ্কশিওর নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, আগামী বছর স্যাটেলাইটটি মহাকাশে পাঠাবে তারা। চীনের উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ গানসুর জিগুয়ান স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে এটি পাঠানো হবে।

এছাড়াও একই সেন্টার থেকে ২০২০ সালের মধ্যে আরও দশটি স্যাটেলাইট পাঠানোর চিন্তা রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। ২০২৬ সালের মধ্যে স্যাটেলাইটের পরিমাণ দাঁড়াতে পারে ২৭২ এ।

চায়না ডেইলি জানায়, এ ইন্টারনেট ব্যবহার করতে হলে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানে লগইন করতে হবে। বিশ্বের যে কোনো স্থান থেকে এ সুবিধা নেওয়া যাবে।

এমনকি যেসব এলাকায় টেলিকম কোম্পানিগুলো তাদের নেটওয়ার্ক পৌঁছাতে পারেনি সেখানেও এই নেটওয়ার্ক পাওয়া যাবে। লিঙ্কশিওর নেটওয়ার্কের প্রধান নির্বাহী ওয়াং জিংগিয়েন বলেন, এই পরিকল্পনায় আমাদের প্রতিষ্ঠান ৪৩ কোটি ১৪ লাখ মার্কিন ডলার (৩০০ কোটি ইউয়ান) বিনিয়োগ করছে।

নারী এ কর্মকর্তা বলেন, ‘ভবিষ্যৎ প্রযুক্তি যুগের কথা চিন্তা করে আমরা এ প্রকল্প হাতে নিয়েছি। এ প্রকল্প বাস্তবায়নে সব ধরনের প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়ে গেছে।’

জাতিসংঘের ২০১৭ সালের এক হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বব্যাপী অন্তত ৩৯০ কোটি মানুষ ইন্টারনেট সেবার বাইরে রয়েছে। বর্তমানে বিশ্বের বহু প্রতিষ্ঠান যেমন গুগল, স্পেসএক্স, ওয়ানওয়েব এবং টেলিস্যাট ফ্রি ইন্টারনেট দিতে স্যাটেলাইট প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

নিউজওয়ান২৪/ইরু

মোবাইল-পিসি-টেক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত