ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ

নুসরাত হত্যা: মামলার রায়ের কপি হস্তান্তর

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১:২৪, ২৯ অক্টোবর ২০১৯  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

মাদরাসাছাত্রী নুসরাত হত্যা মামলার রায়ের পূর্ণাঙ্গ কপি আসামিপক্ষের আইনজীবী ও তাদের স্বজনদের কাছে হ্স্তান্তর করা হয়েছে। কপিতে ৬০ দিনের মধ্যে উচ্চ আদালতে রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার সময় রয়েছে। এর আগে ২৪ অক্টোবর নুসরাত হত্যা মামলায় চার্জশিটভুক্ত ১৬ আসামির সবাইকে মৃত্যুদণ্ড দেন আদালত। 

আসামিপক্ষের আইনজীবী কামরুজ্জামান বলেন, ২৪ অক্টোবর রায়ের যে খসড়া কপি আমাদের দেয়া হয়, সেখানে সাত কার্যদিবসের মধ্যে আপিল করার ব্যাপারে উল্লেখ ছিল। কিন্তু পূর্ণাঙ্গ রায়ের কপিতে ৬০ দিন উল্লেখ রয়েছে। আমরা ২১১ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায়ের কপি হাতে পেয়েছি। এখন উচ্চ আদালতে আপিল করার প্রস্তুতি নিচ্ছি। আপিলের শুনানিতে আমরা ন্যায় বিচার পাবো বলে আশা করছি।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী হাফেজ আহম্মদ বলেন, এ মামলার মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য বুধবার লাল কাপড়ে মুড়িয়ে উচ্চ আদালতে পাঠানো হবে।

সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগে মামলা করেন নুসরাত জাহান রাফির মা। সেই মামলায় অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর জেরে ক্ষিপ্ত অধ্যক্ষের নির্দেশে ৬ এপ্রিল নুসরাত জাহানকে মাদরাসার সাইক্লোন শেল্টারের ছাদে ডেকে নেয়া হয়। ওই সময় নুসরাতকে মামলা তোলার হুমকি দেয় অধ্যক্ষের অনুসারীরা। মামলা তোলার কথা অস্বীকার করলে নুসরাতের হাত-পা বেঁধে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা। এ ঘটনায় ৮ এপ্রিল নুসরাতের বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বাদী হয়ে আটজনের নাম উল্লেখ করে সোনাগাজী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। ১০ এপ্রিল নুসরাতের মৃত্যুর পর মামলাটি পিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ মামলায় মোট ২১ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তদন্ত কর্মকর্তা ও পিবিআইয়ের পরিদর্শক মোহাম্মদ শাহ আলম তদন্ত শেষে ২৯ মে ১৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলায় পাঁচজনকে অব্যাহতি দেয়া হয়। অভিযোপত্রভুক্ত ১৬ আসামির মধ্যে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার বরখাস্তকৃত অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাসহ ১২জন ঘটনার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি দেন। পরে যুক্তি-তর্ক শুনানি শেষে ওই মামলায় ১৬ জনের ফাঁসির আদেশ দেন ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মামুনুর রশিদ। 

ফাঁসির আসামরিা হলেন -সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার বরখাস্ত হওয়া অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলা, রুহুল আমিন, সোনাগাজী পৌরসভার কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম, মাদরাসার শিক্ষক আবদুল কাদের, প্রভাষক আফসার উদ্দিন, মাদরাসার ছাত্র নুর উদ্দিন, শাহাদাত হোসেন শামীম, সাইফুর রহমান মোহাম্মদ যোবায়ের, জাবেদ হোসেন ওরফে সাখাওয়াত হোসেন জাবেদ, কামরুন নাহার মনি, উম্মে সুলতানা পপি ওরফে তুহিন, আবদুর রহিম শরিফ, ইফতেখার উদ্দিন রানা, ইমরান হোসেন মামুন, মোহাম্মদ শামীম ও মহি উদ্দিন শাকিল। এদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

আরও পড়ুন
স্বদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত