ঢাকা, ১১ আগস্ট, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

নারায়ণগঞ্জে সেফটিক ট্যাংক বিস্ফোরণে নিহত ৩, আহত আট

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৪:১২, ৮ মে ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত


নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় সেফটিক ট্যাংক বিস্ফোরণে দুই ভাই ও অন্তঃসত্ত্বা এক নারীসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো আটজন।

শুক্রবার (৮ মে) সকাল ছয়টার দিকে বন্দরের দিঘীরপাড় মোল্লাবাড়ি এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণে আশেপাশের চারটি ভবনের বাড়ির দেয়াল ও বিভিন্ন রুম ভেঙে যায়।

পুলিশ ও প্রতিবেশী সোহেল মোল্লাসহ আরো অনেকে জানান, বন্দর দিঘিরপাড়ের রাবেয়া মঞ্জিল- ৪৬১/১, উইলসন কবরস্থান রোডের পাঁচ তলা বাড়িটিতে বিকট শব্দে সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণ হয়। এতে নীচ তলার ফ্ল্যাটের ভাড়াটিয়া খোরশেদ আলমের দুই ছেলে মাসনূন (১৩) ও জিসান( ৮) ঘটনাস্থলে নিহত হয়। 

বিস্ফোরণে পাশের বাড়ির রতন মিয়ার চার তলা ভবনের দেয়াল ধসে পড়ে একটি টিনশেড বাড়ির ওপর। টিনসেড বাড়ির দেয়াল চাপা পড়ে লাবনী আক্তার নামে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক নারী গুরুতর আহত হন। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

মৃত মাসনূন ও জিসানের মা রুনা আক্তার জানান, ভোর রাতে সেহরি খেয়ে তার দুই ছেলে সেফটিক ট্যাংকের ওপরে থাকা রুমে ঘুমাতে যায়। ভোর ছয়টার দিকে হঠাৎ বিকট শব্দে ঘুম ভেঙে দেখি বিস্ফোরণে ফ্ল্যাটের চারটি রুমে ভেঙে গেছে।

এদিকে বিস্ফোরণের খবর পেয়ে বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুক্লা সরকারসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বিস্ফোরণে যে চারটি ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ওই ভবনে বসবাসকারী লোকজনকে অন্যত্র সরে যেতে নির্দেশ দেন।

বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, এই ঘটনায় তিন জন নিহত ও আট জন আহত হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। কেন কী কারণে সেপটিক ট্যাংক বিস্ফোরণে ঘটেছে। ভবন নির্মাণে কোনো ত্রুটি ছিল কিনা সিটি করপোরেশনের ইঞ্জিনিয়ার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে রিপোর্ট দিলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নারায়ণগঞ্জ বন্দর ফায়ার স্টেশনের স্টেশন অফিসার জিন্নাত আলী খান জানান, সকালে বিস্ফোরণের খবর পেয়ে দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সেখানে গুরুতর আহত এক অন্তঃসত্ত্বাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে। ভবন নির্মাণের ত্রুটির কারণে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটতে পারে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

আরও পড়ুন
স্বদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত