ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ ডেঙ্গি নিয়ন্ত্রণে একটি সমন্বিত পদক্ষেপ খুবই জরুরি

তারেকের বন্ধু মামুনের আবারো ৭ বছরের দণ্ড 

স্টাফ রিপোর্টার

প্রকাশিত: ১৪:০২, ২৪ এপ্রিল ২০১৯  

গিয়াসউদ্দিন আল মামুন     -ফাইল ছবি

গিয়াসউদ্দিন আল মামুন -ফাইল ছবি

২০১৩ সালের ১৭ নভেম্বর ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুনকে অর্থপাচার মামলায় সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছিলেন ঢাকার তৃতীয় বিশেষ জজ আদালত। প্রায় ছয় বছর পরে আরেকটি অর্থপাচারের মামলার রায়ে আজ (বুধবার) গিয়াস উদ্দিন আল মামুন আবারো সাত বছরের কারাদণণ্ডে দণ্ডিত হলেন। কারাদণ্ডের সঙ্গে ১২ কোটি টাকা জরিমানাও করা হয়েছে তার।

ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক আবু সৈয়দ দিলজার হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। রায় ঘোষণার আগে মামুনকে কারাগার থেকে আদালতে আনা হয়।

গত ৮ এপ্রিল রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য আজকের (২৪ এপ্রিল) দিন ধার্য করা হয়।
মামলার অভিযোগে প্রকাশ, রেলওয়ে সিগন্যাল সিস্টেম আধুনিকায়নের একটি প্রকল্প থেকে ২০০৩ থেকে ২০০৬ সালের মধ্যে ছয় কোটি এক লাখ ৫৭ হাজার ৭৬২ টাকা ঘুষ নেন মামুন। পরবর্তীতে ওই অর্থ বাংলাদেশ থেকে লন্ডনের ন্যাটওয়েস্ট ব্যাংকে পাচার করেন। এই অভিযোগে ২০১১ সালের ২২ সেপ্টেম্বর ঢাকার ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করে দুদক। পরের বছর ২৯ এপ্রিল মামুনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে দুদক। ১২জন সাক্ষীর মধ্যে বিভিন্ন সময় ১০জন সাক্ষ্য দেন।

বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৭ সালের ৩০ জানুয়ারি যৌথ বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হন বর্তমানে লন্ডনে বসবাসরত (পলাতক) বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ঘনিষ্ঠ বন্ধু গিয়াস উদ্দিন আল মামুন। এরপর থেকে তিনি কারাগারে রয়েছেন।

২০১৩ সালের ১৭ নভেম্বর গিয়াস উদ্দিন আল মামুনকে অপর একটি অর্থপাচার মামলায় সাত বছরের দণ্ডসহ ৪০ কোটি টাকা জরিমানাও করা হয়। এছাড়া পাচার করা ২০ কোটি ৪১ লাখ ২৫ হাজার ৬১৩ টাকা রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করারও নির্দেশ দেন আদালত।
নিউজওয়ান২৪.কম/এফএন

আইন আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত