ঢাকা, ১২ এপ্রিল, ২০২১
সর্বশেষ:
দেশে প্রথমবারের মতো সংবাদ পাঠ করলেন ট্রান্সজেন্ডার নারী ২৫ মার্চ চট্টগ্রামে অনেককে জিয়া গুলি করে হত্যা করে: প্রধানমন্ত্রী

তামিমার দেশত্যাগ আটকাতে আগের স্বামীর চিঠি

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০০:৫৬, ২৩ মার্চ ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

আদালতে হওয়া মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ক্রিকেটার নাসির হোসেনের স্ত্রী তামিমা সুলতানা তাম্মি যেন ক্রেবিন ক্রু হিসেবে বাংলাদেশ ত্যাগ করতে না পারেন সে জন্য সৌদিয়া এয়ারলাইন্সকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। তামিমার আগের স্বামী রাকিব হাসানের পক্ষে এ চিঠি দেন আইনজীবী ইশরাত হাসান।

গত ১০ মার্চ দেওয়া এ চিঠির বিষয়টি সোমবার নিশ্চিত করেছেন এ আইনজীবী।

রাকিব হাসান বাদী হয়ে ২৪ ফেব্রুয়ারি দণ্ডবিধির ৪৯৪/৪৯৭/৪৯৮/৫০০ ধারা অনুযায়ী নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে বিয়ের তথ্য গোপন করে অন্যত্র বিয়ে, অন্যের স্ত্রীকে প্রলুব্ধ করে প্রতারণার মাধ্যমে বিয়ে, ব্যভিচার ও মানহানির অভিযোগে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন। আদালত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী ৩০ মার্চের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।

ওইদিন আইনজীবী ইশরাত হাসান জানিয়েছিলেন, তাম্মি আগের স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন। আইন অনুযায়ী তারা উভয়ে অপরাধ করেছেন এবং এ বিয়ে বাতিল বলে গণ্য। তাই আমরা রাকিবের পক্ষে আদালতে মামলাটি দায়ের করি।

১০ মার্চ সৌদি এয়ারলাইন্সের কান্ট্রি ম্যানেজরকে দেওয়া চিঠিতে বলা হয়, ক্রেবিন ক্রু তামিমা সুলতানার বিরুদ্ধে মহানগর হাকিম আদালতে মামলা রয়েছে। ক্রেবিন ক্রু হিসেবে সে বাংলাদেশ ত্যাগ করে আর নাও ফিরতে পারে। যা মামলায় বাধাগ্রস্ত হতে পারে। রাকিব হাসান বিশ্বাস করে মামলায় থাকা এ রকম একজনকে বাংলাদেশ ত্যাগে অনুমতি দেবে না সৌদি এয়ারলাইন্স।

চিঠিতে এ মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তামিমা সুলতানা যেন বাংলাদেশ ত্যাগ করতে না পারে সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে অনুরোধ করা হয়েছে।

ইশরাত হাসান জানান, বিষয়টি সৌদি এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষে অবহিত করতে এ চিঠি দেওয়া হয়েছে। কারণ তামিমা সুলতানার পাসপোর্ট ও কর্মস্থলের ডকুমেন্টে রাকিব হাসানের নাম রয়েছে।

চলতি বছরের ভালোবাসা দিবসে প্রেমিকা তামিমাকে জমকালো আয়োজনে বিয়ে করেন নাসির। বিয়ের আলোচনা থামার আগেই তামিমার আগের স্বামী রাকিব হাসান থানায় জিডি করেন।

জিডিতে রাকিবের অভিযোগ, তামিমার সঙ্গে ১১ বছরের দাম্পত্য জীবন কাটিয়েছেন তিনি। তাদের ৮ বছরের কন্যা সন্তান রয়েছে। অথচ তাকে ডিভোর্স না দেওয়ার পরও নাসির জেনেশুনে তামিমাকে বিয়ে করেন। তবে তামিমার দাবি রকিবকে ডিভোর্স দিয়েই তিনি নাসিরকে বিয়ে করেছেন।

আরও পড়ুন
আইন আদালত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত