ঢাকা, ০৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩
সর্বশেষ:

‘ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’ শেষ, পুরস্কার পেলেন যারা

নিজস্ব সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ১১:১৮, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩  

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি


দেশের সবচেয়ে বড় চলচ্চিত্র উৎসব ‘ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব’। ৯ দিনব্যাপী এই উৎসবের পর্দা নেমেছে রবিবার (২২ জানুয়ারি)।

১০টি বিভাগে এবারের উৎসবে বাংলাদেশসহ ৭১টি দেশের মোট ২৫২টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়। রবিবার জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তনে অতিথি, জুরি ও বিভিন্ন দেশ থেকে আসা নির্মাতা, প্রযোজকদের উপস্থিতিতে ঘোষণা করা হয় এবারের উৎসবে বিজয়ী ছবি, তথ্যচিত্র, নির্মাতা, অভিনেতা, অভিনেত্রী ও চিত্রগ্রাহকের নাম। সেই সঙ্গে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিরা।

উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় সংসদের উপনেতা মতিয়া চৌধুরী, বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের তথ্য সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার, বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. কামরুজ্জামান, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকি এবং ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব কমিটির চেয়ারম্যান কিশওয়ার কামাল।

রেইনবো চলচ্চিত্র সংসদের উদ্যোগে বরাবরের মতোই এবারের উৎসবেও এশিয়ান ফিল্ম প্রতিযোগিতা বিভাগ, রেট্রোস্পেকটিভ বিভাগ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অফ দ্য ওয়ার্ল্ড, চিল্ড্রেন ফিল্মস্, স্পিরিচুয়াল ফিল্মস, শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেনডেন্ট ফিল্ম এবং উইমেন্স ফিল্ম মেকার বিভাগে চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়। এবারের উৎসবে বাংলাদেশ প্যানোরমা সেকশনে সেরা চলচ্চিত্র হিসেবে পুরস্কার জিতে নেয় ‘সাঁতাও’।

শ্রেষ্ঠ শিশুচলচ্চিত্র বাদল রহমান পুরস্কার বিজয়ী চলচ্চিত্র হয়েছে ‘মাজেল এ তায়েম্ফস্তভি লেসা’ (মার্টিন অ্যান্ড দ্যা ম্যাজিকাল ফরেস্ট), (চেক প্রজাতন্ত্র, স্লোভাকিয়া, জার্মানি)। এশিয়ান চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা বিভাগে পোডেলনিকি (দ্যা রায়ট), রাশিয়া; চলচ্চিত্রটির জন্য সেরা সিনেমাটোগ্রাফি পুরস্কার বিজয়ী হন আর্টিওম আনিসিমভ। অপরাজিত (দ্যা আনডিফিটেড), ভারত; চলচ্চিত্রের জন্য সেরা স্ক্রিপ্ট রাইটার মি. অনিক দত্ত। প্রপেদা (হকস মাফিন), ভারত ; চলচ্চিত্রের জন্য সেরা অভিনেত্রী কেতকী নারায়ন।

নাকোডো-ম্যাচমেকারস (ম্যারেজ কাউন্সেলর), জাপান; চলচ্চিত্রর জন্য সেরা অভিনেতা মিস্টার ইক্কেই ওয়াতানাবে। জেন্দেগি ভা জেন্দেগি ( লাইফ অ্যান্ড লাইফ),ইরান; চলচ্চিত্রের জন্য সেরা পরিচালক আলী ঘাভিতান। শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র দ্বি-মাদার (মাদারলেস) ইরান। স্পিরিচুয়াল ফিল্ম সেকশনে সেরা তথ্যচিত্র ‘মহাত্মা হাফকাইন’ (রাশিয়া)। সেরা ফিচার ফিল্ম ঘোর ফেরা (ঘরে ফেরা)।

উইমেন ফিল্মমেকারস সেকশনে সেরা তথ্যচিত্র ওয়ার মাদার-গ্র্যান্ডমাদার, প্রাইম মিনিস্টার: সিরিমাভো। বিশেষ অডিয়েন্স পুরস্কার বিজয়ী চলচ্চিত্র হয়েছে ‘জে কে ১৯৭১’ (বাংলাদেশ)। অডিয়েন্স পুরস্কার জয়ী চলচ্চিত্র হল ‘হাওয়া’ (বাংলাদেশ)। অ্যালে উলেন গেলিয়েবট ওয়ের্ডেন (এভরিবডি ভালোবাসতে চায়), জার্মানি; চলচ্চিত্রের জন্য সেরা পরিচালক ক্যাথেরিনা ওল। সেরা ফিচার ফিল্ম অ্যাকাউসে মি (লিসেন)।

মহাত্মা হাফকাইন ডির: গ্যালিনা ইভতুশেঙ্কো, আনা ইভতুশেঙ্কো সময়কাল: ৯৬ মিনিট। রাশিয়া সেরা ফিকশন ফিল্ম ঘরে ফেরা (হোম কামিং) বাংলাদেশ। সল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সেকশনের প্রথম রানার আপ-‘হাঘরে’ (এন এরা অফ হোমলেসনেস), জয়তু সুশীল জিকু, বাংলাদেশ। অ্যাওয়ার্ড বাই ফিপরেস্কি জুরি সল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সেকশনের দ্বিতীয় রানার আপ চলচ্চিত্র-কৃষ্ণপক্ষ (এ বার্নিং সোল), মৃত্তিকা রাশেদ, বাংলাদেশ।

নিউজওয়ান২৪.কম/আরএএনআই