ঢাকা, ০৪ এপ্রিল, ২০২০
সর্বশেষ:
করোনায় মৃত্যুতে ইতালির পরই রয়েছে স্পেনের অবস্থান। তবে আক্রান্তের দিক থেকে বিশ্বের সব দেশকে ছাড়িয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্র। জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট, মাংসপেশি ও গাঁটে ব্যথাসহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ দেখা দিলে আইইডিসিআরের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। আইইডিসিআরের হটলাইন নম্বর: ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯৩৭১১০০১১ জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র আশ্রমের সেবককে কুপিয়ে হত্যা

পাবনা সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ১১:০৮, ১০ জুন ২০১৬   আপডেট: ১১:৫৭, ১১ জুন ২০১৬

নিত্যরঞ্জন পাণ্ডে      ফাইল ফটো

নিত্যরঞ্জন পাণ্ডে ফাইল ফটো

পাবনা: জেলার হেমায়েতপুরে শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূল চন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রমের সেবক নিত্যরঞ্জন পাণ্ডেকে (৬২) কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। আজ (শুক্রবার) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিত্যরঞ্জন পাণ্ডে আশ্রম পরিচালিত লাইব্রেরির কর্মী ছিলেন বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিনের মতো আজ ভোরে রাস্তায় হাঁটতে বেরিয়েছিলেন নিত্যরঞ্জন। পাবনা মানসিক হাসপাতালের উত্তরপাশে প্রধান গেটে পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা পেছন থেকে তার ঘাড়ে-মাথায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান সেবক নিত্যরঞ্জন পাণ্ডে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে। তবে কারা কী কারণে নিত্যরঞ্জনকে হত্যা করেছে তা জানা যায়নি। হত্যার কারণ ও হত্যাকারী সম্পর্কে খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এদিকে, ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন পাবনা পুলিশ সুপার আলমগীর কবিরসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা।

দেশের বিভিন্ন স্থানে ধারাবাহিক হত্যাকাণ্ডের অংশ হিসেবে নিষিদ্ধ জঙ্গিরা পাবনার হেমায়েতপুর অনুকূল চন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রমের সেবায়েত নিত্যরঞ্জনকে হত্যা করে থাকতে পারে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

নিহত নিত্যরঞ্জন পাণ্ডের বাড়ি গোপালগঞ্জ সদরের আরুয়া কংশু এলাকায়। তিনি প্রায় ৪০ বছর ধরে পাবনার ঠাকুর অনুকূল চন্দ্র আশ্রমে সেবক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

সম্প্রতি নাটোরে এক খ্রিস্টান মুদি দোকানি ও ঝিনাইদহে হিন্দু পুরোহিতকে কুপিয়ে হত্যার রেশ না কাটতেই এ ঘটনা ঘটল। এর আগে গত এপ্রিলে টাঙ্গাইলের গোপালপরে নিখলচন্দ্র জোয়অরদার নামে এক হিন্দু দর্জিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। গত ফেব্রুয়ারিতে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে যজ্ঞেশ্বর দাসাধীকারী (৫০) নামে এক মঠের পুরোহিতকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

নিউজওয়ান২৪.কম/এসআর/ইএ

আরও পড়ুন
স্বদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত