ঢাকা, ০২ জুলাই, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

ঘূর্ণিঝড় বুলবুল আট জেলায় ১৩ জনের প্রাণ কেড়ে নিল

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:৫৪, ১১ নভেম্বর ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

রোববার (১০ নভেম্বর) ভোররাতে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে আট জেলায় ১৩ জন নিহত হয়েছেন।  আঘাত হানার পর শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে এসব প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

একই সঙ্গে উপকূলীয় অঞ্চলে গাছপালা ভেঙে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বাড়িঘর বিধ্বস্ত হয়েছে লক্ষাধিক। এর মধ্যে শুধু সাতক্ষীরায় বুলবুলের তাণ্ডবে ৫০ হাজার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিরা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নিহতদের মধ্যে খুলনায় দু’জন, পিরোজপুরে দু’জন, বরিশালে একজন, পটুয়াখালীতে দু’জন, বরগুনায় একজন, বাগেরহাটে দু’জন, গোপালগঞ্জে একজন, শরীয়তপুরে একজন ও মাদারীপুরে একজন রয়েছেন।

তবে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে দু’জন নিহত ও আহত হয়েছেন ৩০ জন। এ সময় চার থেকে ৫ হাজার কাঁচা ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে খুলনার উপকূলীয় দাকোপ উপজেলায় প্রমিলা মন্ডল (৫২) নামে এক নারী ঝড়ের সময় গাছ চাপা পড়ে নিহত হয়েছেন। রোববার সকাল ১০টার দিকে দক্ষিণ দাকোপে এ ঘটনা ঘটে। নিহত প্রমিলা সুভাস মন্ডলের স্ত্রী। পাশাপাশি খুলনার দিঘলিয়া উপজেলায় সেনহাটি গ্রামে আলমগীর হোসেন (৩৫) নামে এক যুবক গাছ চাপা পড়ে নিহত হয়েছেন।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে পিরোজপুরে দুজন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে নাজিরপুরে বসতঘরের ওপর গাছ উপড়ে পড়ায় নিচে চাপা পড়ে ননী গোপাল মণ্ডল (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। অপর এক স্থানে একই কারণে হাত-পা ভেঙে গুরুতর আহত হয়েছে সুমী (৮) ও নাসির (১৬) নামে দুই শিশু। এছাড়া ভাণ্ডারিয়া উপজেলায় এক শিশু পানিতে ডুবে মারা গেছে।

বরিশালে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে ঘরের ওপর গাছ উপড়ে পড়ায় নিচে চাপা পড়ে আশালতা মজুমদার (৬৫) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। রোববার দুপুর আড়াইটার দিকে বরিশালের উজিরপুর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ মাদারশী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের উত্তর রামপুরা গ্রামে হামেদ ফকির (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। এছাড়াও জেলার কলাপাড়া উপজেলার পূর্ব ধানখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সাইক্লোন শেল্টারে রিজিয়া বেগম (৬৫) নামে এক বৃদ্ধা মারা গেছেন।

বরগুনা সদর উপজেলার ডিএন কলেজ আশ্রয়কেন্দ্রে হালিমা খাতুন (৬৫) নামে এক বৃদ্ধা মারা গেছেন। তার বাড়ি সদর উপজেলার বানাই গ্রামে।

বাগেরহাটের রামপাল ও ফকিরহাট উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে শিশু ও নারীসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের মধ্যে রয়েছে রামপাল উপজেলার উজলকুড় গ্রামে শিশু সামিয়া খাতুন (১৫) ও ফকিরহাট উপজেলার চাকুলী গ্রামের গৃহবধূ হীরা বেগম (২৫)। বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে শতাধিক ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। হাজার হাজার গাছপালা উপড়ে গেছে। ঝড়ের সময় গাছ চাপা পড়ে সেকেল হাওলাদার (৭০) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। নিহত সেকেল হাওলাদার উপজেলার বান্ধাবাড়ি গ্রামের মৃত হাসান উদ্দিন হাওলাদারের ছেলে।

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে ভেঙে পড়া গাছ চাপায় মো. আলীবক্স ছৈয়াল (৬৮) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। রোববার দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নের দেওজুড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মাদারীপু‌রে ঘূ‌র্ণিঝড় বুলবু‌লের প্রভা‌বে ঘরের ভেতরে রাখা আলমিরার নিচে চাপা প‌ড়ে সা‌লেহা বেগম (৪০) না‌মে এক নারী নিহত হ‌য়ে‌ছেন। ‌নিহত সা‌লেহা বেগম সদর উপ‌জেলার ঘটমা‌ঝি গ্রা‌মের আ‌জিদ খাঁ‌য়ের স্ত্রী।

মাদারীপুর সদর উপ‌জেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফু‌দ্দিন গিয়াস জা‌নি‌য়েন, দুপু‌রে মাদারীপুর দি‌য়ে ব‌য়ে যাওয়া ঘূ‌র্ণিঝড় বুলবু‌লের প্রভা‌বে সদর উপ‌জেলার ঘটমা‌ঝিতে সা‌লেহা বেগমের ঘর বাতা‌সে হে‌লে পড়‌লে ঘ‌রের ভেত‌রের এক‌টি আলমা‌রি গা‌য়ে প‌ড়ে গুরুতর আহত হন। তা‌কে সদর হাসপাতা‌লে নি‌য়ে গেলে চি‌কিৎসক মৃত ঘোষণা ক‌রেন।

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

আরও পড়ুন
স্বদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত