ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ

গাছের পাতা চুরি: রংপুরে বেগম রোকেয়া কলেজে তুলকালাম

রংপুর করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ২০:০৯, ২১ এপ্রিল ২০১৬   আপডেট: ১৩:২৮, ১৮ মে ২০১৬

সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ    -ফাইল ফটো

সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ -ফাইল ফটো

রংপুর: সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজে আজ (বৃহস্পতিবার) এক চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীকে বরখাস্ত করাকে কেন্দ্র করে তুলকালাম কাণ্ড ঘটেছে। বিক্ষুদ্ধ কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা প্রায় ৩ ঘণ্টা কলেজ অধ্যক্ষ, শিক্ষক ও সাংবাদিকদের অবরুদ্ধ করে রাখে। বিক্ষুদ্ধরা এসময় ভাংচুর করে কলেজ ক্যান্টিন ও একাত্তর টিভির ক্যামেরা।

কলেজ, পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, ক্যাম্পাসের গাছের শুকনো ডাল ও পাতা চুরির অপরাধে কলেজের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ফজলুল হককে কয়েকদিন আগে ছাঁটাই করেন কলেজের অধ্যক্ষ।

এর জের ধরে বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে সেখানকার কর্মচারীরা ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেন। তাদের সমর্থনে যোগ দেন কলেজের ছাত্রীরাও।

বিক্ষোভ চলাকালে কলেজের ক্যান্টিনে ভাংচুর চালায় বিক্ষুদ্ধ ছাত্রীরা। খবর পেয়ে গণমাধ্যম কর্মীরা দায়িত্ব পালনে সেখানে ছুটে যান। এসময় বিক্ষুদ্ধ ছাত্রীরা কলেজ অ্যধক্ষ, শিক্ষকসহ সময় টিভির মানিক সরকার মানিক, একাত্তরের বায়েজিদসহ কয়েকজন সাংবাদিককে অধ্যক্ষের রুমে তালাবদ্ধ করে রাখে।

এক পর্যায়ে উত্তেজিত ছাত্রীরা একাত্তর টিভির ক্যামেরা ভাংচুর করে। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

শেষপর্যন্ত কলেজ অধ্যক্ষ কর্মচারী ফজলুল হককে ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের ঘোষণা দিলে অবরুদ্ধরা মুক্তি পান।

কলেজের ছাত্রী রোকসানা বেগম মর্জিনা বেগমসহ আন্দোলনকারীরা বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দরিদ্র কর্মচারীকে ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদ করেছি মাত্র।

কলেজ অধ্যক্ষ আব্দুল লতিফ মিয়া বলেন, কাউকে না জানিয়ে কলেজের গাছের পাতা নেওয়া অপরাধ। এজন্য শাস্তি দেওয়া হয়েছিল।

বিকালে কোতোয়ালি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল ইসলাম বলেন, এখন কলেজ শান্ত রয়েছে। পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

নিউজওয়ান২৪.কম/আরকে

 

আরও পড়ুন
স্বদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত