ঢাকা, ১৯ নভেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ

কাশ্মীর ইস্যুতে মোদীর পর ইমরানের সঙ্গে ট্রাম্পের ফোনালাপ

বিশ্ব সংবাদ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৫৫, ২০ আগস্ট ২০১৯  

মোদী, ইমরান ও ট্রাম্প (ফাইল ফটো)

মোদী, ইমরান ও ট্রাম্প (ফাইল ফটো)

চলমান কাশ্মীর সঙ্কট নিরসনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর পর এবার পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। 

গত সোমবার (১৯ আগস্ট) পরমাণু অস্ত্রধর প্রতিবেশী এই দুই দেশের মধ্যে আগামীতে যেন আর কোনো সংঘাতমূলক কিছু না ঘটে সে ব্যাপারে তাগিদ দেয়ার পাশাপাশি দিল্লি-ইসলামাবাদের সঙ্গে ওয়াশিংটনের বাণিজ্যিক অগ্রগতি নিয়েও কথা বলেন মার্কিন এ প্রেসিডেন্ট।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) এক টুইট বার্তায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, 'দুই জনই আমার বেশ ভালো বন্ধু— কাশ্মীরের চলমান উত্তপ্ত অবস্থার অবসানের পথ অনুসন্ধানে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে।' 

ট্রাম্প তার টুইট বার্তায় আরো বলেন, ‘ফোনালাপে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য, কৌশলগত অংশীদারিত্ব এবং দেশ দুটি কীভাবে কাশ্মীর নিয়ে নিজেদের মধ্যকার উত্তপ্ত অবস্থার অবসান ঘটাতে পারে, সে বিষয়গুলো নিয়েও আমরা কথা বলেছি। বর্তমানে কঠিন একটা পরিস্থিতি, তবে আমাদের ভালোই আলাপ হয়েছে।’

সূত্রের বরাতে ‘রয়টার্সে’র প্রতিবেদনে জানানো হয়, সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহারের পর ইসলামাবাদ ও নয়াদিল্লির মধ্যকার সম্পর্কে নতুন এক অবস্থান তৈরি হয়। যদিও অনেক আগে থেকেই দেশ দুটি উপত্যকাটিকে নিজেদের বলে দাবি করে আসছে। সর্বশেষ নিজেদের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার থেকে শুরু করে সব ধরনের বাণিজ্য ও যোগাযোগ সম্পর্ক ছিন্নের মাধ্যমে উভয়পক্ষ কড়া ভাষায় একে অপরকে জবাব দিতে শুরু করেছে।

এর আগে গত ৫ আগস্ট (সোমবার) ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছিল ক্ষমতাসীন মোদী সরকার। যার প্রেক্ষিতে পরবর্তীতে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে বিতর্কিত লাদাখ, জম্মু ও কাশ্মীর সৃষ্টির প্রস্তাবেও সমর্থন জানানো হয়।

এসবের মধ্যেই চলমান কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারত মধ্যকার সম্পর্কে নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। এরই মধ্যে একে একে ভারত সরকারের সঙ্গে বাণিজ্য, যোগাযোগসহ সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দিয়েছে প্রতিবেশী পাকিস্তান। যদিও এমন সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে পাক সরকারের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে এশিয়ার পরাশক্তি চীন; আর ভারত পাশে পেয়েছে রাশিয়াকে।

নিউজওয়ান২৪.কম/আ.রাফি

আরও পড়ুন
বিশ্ব সংবাদ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত