ঢাকা, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

আমাদের উচিত মোদিকে ভারতের জনক বলে ডাকা: ট্রাম্প

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৭:৩৪, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ভ্রাতৃসুলভ সৌহার্দ্যময় পরিবেশে মোদি ও ট্রাম্প। যেন সহোদর দুই ভাই; যা আজকালকার বিশ্ব নেতাদের মাঝে বিরল            ছবি: ডেইলি মেইল

ভ্রাতৃসুলভ সৌহার্দ্যময় পরিবেশে মোদি ও ট্রাম্প। যেন সহোদর দুই ভাই; যা আজকালকার বিশ্ব নেতাদের মাঝে বিরল ছবি: ডেইলি মেইল

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের অঙ্গরাজ্যের হিউস্টনে আয়োজিত ‘হাউডি মোদি’ অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘ভারতের জনক’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। গতকাল (২৪ সেপ্টেম্বর) আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে ট্রাম্প বলেন, “৬৯ বছরের এই ভারতীয় নেতাই হলেন ‘ফাদার অব ইন্ডিয়া’।”

৫০ হাজারেরও বেশি জনসমাগমের ওই অনুষ্ঠানে তিনি তাকে এমনকি একসময়ের তুমুল শ্রোতাধন্য মার্কিন গায়ক এলভিস প্রিসলির জনপ্রিয়তার সঙ্গে মোদির জনপ্রিয়তার তুলনা করেন। এর আগে অপর এক অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের আগামী নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রতি সরাসরি সমর্থন জানিয়ে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেছিলেন, ‘এবারও আসুক ট্রাম্প সরকার।’ কূটনৈতিক প্রটোকল ভেঙে এভাবে অপর একটি দেশের ক্ষমতাসীন রাষ্ট্রপ্রধানের প্রতি সমর্থন জানানোয় অবশ্য মোদির ব্যাপক সমালোচনাও হয়।  

ভারতীয় মিডিয়া এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে ভারতীয় নেতার ব্যাপক জনপ্রিয়তা দেখে মার্কিন রক অ্যান্ড রোল কিংবদন্তি এলভিস প্রিসলির সঙ্গে মোদির তুলনা করেছেন ট্রাম্প। নিউইয়র্কে নিজেদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের আগে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার মনে আছে- আগের ভারত ...খুবই ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন এক দেশ ছিল। প্রচুর মতবিরোধ ছিলো, প্রচুর লড়াই ছিলো। মোদি সবাইকে একত্রিত করেছেন। একজন বাবার মতো তিনি সবাইকে বেঁধে রেখেছেন। হয়তো তিনিই ভারতের জনক। আমাদের উচিত তাকে ভারতের জনক হিসেবে সম্বোধন করা...আমি মনে করি তিনি ভারতে চমৎকার কাজ করছেন।’

যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী ভারতীয়দের উদ্দেশ্য করে ট্রাম্প এসময় আরও বলেন, ‘এই অনুষ্ঠানটিতে প্রমাণিত হলো যে- আমি ভারত দেশটিকে কতটা পছন্দ করি এবং আপনাদের প্রধানমন্ত্রীকেও কতটা পছন্দ করি আমি। ওই হল রুমে অদ্ভুত রকমের উত্তেজনা ছিলো, দুর্দান্ত চেতনা ছিলো। আমার ডানদিকে এই ভদ্রলোককে সকলে এতো ভালোবাসে। মানুষজন পাগলের মতো তাদের ভালোবাসা জানিয়েছেন। মোদি যেন এলভিস প্রিসলির আমেরিকান (ভারতীয়) সংস্করণ! গ্র্যান্ড হাউডি, মোদি!”

এদিকে, প্রশংসা শুধু গ্রহণই করেননি ভারতীয় নেতা। তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্টের মুখ থেকে এমন উচ্চ প্রশংসার জবাবে তাকেও প্রশংসায় ভাসিয়ে দিয়েছেন বলা যায়।
এসময় ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে মোদি বলেন, ‘সিইও থেকে কমান্ডার-ইন-চিফ, বোর্ডরুম থেকে ওভাল অফিস, স্টুডিও থেকে শুরু করে বৈশ্বিক পর্যায়ে, রাজনীতি থেকে শুরু করে অর্থনীতি ও সুরক্ষা- সর্বত্র গভীর ও স্থায়ী প্রভাব ফেলেছেন ট্রাম্প।’ 

এদিকে, পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, এই অনুষ্ঠান আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসী ভারতীয়দের সমর্থন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের দিকে টানতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে।  
নিউজওয়ান২৪.কম/এনআইএস

আরও পড়ুন
বিশ্ব সংবাদ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত