ঢাকা, ১০ আগস্ট, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

সৌদিতে স্থায়ীআবাসের অনুমোদনে প্রবাসী শ্রমিকদের খুশি হবার কিছু নেই

সৌদি আরব সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ২২:১৯, ১৫ মে ২০১৯  

প্রতীকি চিত্র

প্রতীকি চিত্র

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিন কার্ডের আদলে সৌদি আরবেও একটি বিশেষ ব্যবস্থা (স্পেশাল ইকামা) চালুর অনুমোদন হয়েছে যাতে বিদেশিরা দেশটিতে স্থায়ী বসবাসের অনুমতি পাবে। গতকাল (মঙ্গলবার) সৌদি মন্ত্রিসভা এ সংক্রান্ত প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে। বাংলাদেশিসহ দেশটিতে বসবাসরত বিভিন্ন দেশের এক কোটি সাধারণ শ্রমিকদের অনকেই এতে উৎফুল্ল হলেও বাস্তবে তাদের খুশি হওয়ার কিছু নেই বলে জানা গেছে। 

সৌদি আরবের সরকারি সূত্র জানায়, আজ (১৫/৫/১৯) সৌদি মন্ত্রী পরিষদ স্পেশাল ইকামার নীতিমালা অনুমোদন দিয়েছে। তবে বাস্তবে এই সুবিধা শুধুমাত্র বিত্তশালী বিনিয়োগকারীরাই পাবেন। পার্শ্ববর্তী আরব আমিরাতের দুবাইয়ের মতো প্রচুর ট্যাক্স দিয়েই এই সুবিধা গ্রহণ করতে হবে বিদেশিদের। এটাও সৌদি সরকারের রাজস্ব আয়ের অন্যতম সোর্স হবে বলে অনুমান করা হচ্ছে। 

তাই স্পেশাল ইকামা নিয়ে সাধারণ খেটে খাওয়া প্রবাসীদের খুশি হওয়ার তেমন কিছু নেই। বিস্তারিত নীতিমালা প্রকাশ হলে এ বিষয়ে আরো পরিষ্কার জানা যাবে। অভিজ্ঞমহল মনে করছে, প্রবাসীদের সঙ্গে থাকা ফ্যামিলি মেম্বারদের ওপর অর্পিত মাসিক ফি এবং প্রবাসী কর্মীদের ওপর বর্ধিত মক্তবে আমেল থেকে যেমন রাজস্ব আয় হচ্ছে নতুন এই ইকামা থেকেও বড় আকারে রাজস্ব আয় করা সম্ভব। তাই নতুন এই ঘোষণা দিয়েছে সৌদি সরকার।

সৌদি প্রেস এজেন্সির খবরে জানা গেছে, মাস খানেক আগে সৌদি শূরা কাউন্সিল প্রস্তাবটি অনুমোদন করেছিল যা মঙ্গলবার মন্ত্রিসভারও অনুমোদন পায়। খবরে আরো জানা গেছে, এই ব্যবস্থার আওতায় মোটা অঙ্কের ফি দিয়ে সৌদি আরবে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি পাবেন বিদেশি নাগরিকরা। পাশাপাশি সেখানে ব্যবসা করা এবং সম্পত্তির মালিক হওয়ারও সুযোগ হবে সেখানে বসবাসরত প্রবাসী বা বিদেশিদের। তবে যে দৃষ্টিভঙ্গি আর কৌশলে এটা করা হচ্ছে এর জন্য আবেদন করতে পারবেন শুধু বিত্তশালীরাই। 

মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ দেশ সৌদিতে বর্তমানে স্পন্সরশিপভিত্তিক যে ব্যবস্থা চালু আছে তাতে একজন সৌদি চাকরিদাতা স্পন্সর হলে দেশটিতে বিদেশি কারও ওয়ার্ক পারমিট নিয়ে বসবাসের সুযোগ হয়। স্পন্সরশিপ পদ্ধতির আওতায় প্রায় এক কোটি বিদেশি সৌদি আরবে বিভিন্ন পেশায় কর্মরত আছেন।
নিউজওয়ান২৪.কম/আরকে

আরও পড়ুন
প্রবাসী দুনিয়া বিভাগের সর্বাধিক পঠিত