ঢাকা, ৩১ মে, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

মাল্টায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোগান্তি, দেখার কেউ নাই 

আবু তাহির, মালটা 

প্রকাশিত: ১৪:৩৬, ১৪ নভেম্বর ২০১৮  

ইউরোপের সাংস্কৃতিক মঞ্চ খ্যাত দেশ মাল্টায় বাংলাদেশের স্থায়ী কনস্যুলেটের অবহেলায় ভোগান্তিতে পড়ছে সে দেশে বসবাসরত সাধারন বাংলাদেশীরা। অনেকের পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও নবায়ন করার সুবিধা না পাওয়ায় এবং নতুন করে পাসপোর্ট করতে না পারায় কঠিন ঝুঁকির মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন তারা। 

সম্প্রতি সর্ব ইউরোপিয়ান বাংলা  প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহির মাল্টা সফরে গেলে সেখানে এক আলোচনা সভায় এসব কথা উঠে এসেছে।

মাল্টার সেন্ট জুলিয়ানের এক অভিজাত হোটেল এ আয়োজিত এক  মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠেনর চেয়ারম্যান ডাঃ এস বি দাস দাস , সংগঠনের প্রতিষ্ঠাকালিন সভাপতি আপেল আমিন কাওসারের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন  অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহির , সহ সভাপতি সবুজ মিয়া, সাধারণ সম্পাদক কাজেম আলি স্বপন এবং ভাইস চেয়ারম্যান জাকারিয়া মুন্সী সহ সক্রেটারি রাজিব দাস ,  বিপুল দাস, মো: মাসুদ ,নজরুল ইসলাম, আবদুস সালাম, ইসলাম শহীদ, সাইদুর রহমান আল আমিন সহ সংগঠনের  নেতৃবৃন্দ।

এসময় বক্তারা বলেন, মাল্টায় প্রায় তিন  শতাধিক বাংলাদেশী রয়েছে যারা পাসপোর্ট সমস্যায় ভুগছেন । অপরদিকে হাজার খানেক বাংলাদেশী মাল্টায় বসবাস করছেন।  ব্যবসা বানিজ্যসহ নানবিধ কাজ করে রেমিটেন্স পাঠানোর পাশাপাশি মূলধারায় প্রশংসা কুড়িয়ে চলছেন সেখানে বাংলাদেশীরা।অথচ  তাদের অনেকেরই পাসপোর্টের নবায়ন করার জন্য বিড়ম্বনায় পড়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। পাশাপাশি মাল্টা থেকে কেউ বাংলাদেশে যেতে চাইলে ভিসা সংক্রান্ত অনেক জটিলতার মুথে পড়তে হয় তাদের। 

মাল্টার পাশ্ববর্তী দেশ ইতালি হলেও তুলনামূলক অধিক  দূরত্বে গ্রিস দূতাবাসের অধীনে মাল্টায় একটি কনস্যুলার অফিস থাকলে ও  মাল্টায় অবৈতনিক  কনস্যুলার  মাল্টার নাগরিক হওয়ায় এবং প্রবাসীদের সাথে তার কোনধরনের যোগাযোগ না থাকায় অধিকাংশ প্রবাসীরা জানেন না তিনি কোথায় থাকেন। 

সুত্র মতে, মাল্টায় বাংলাদেশের কনস্যুলেট নিয়ন্ত্রন করা হয় গ্রীস থেকে।গ্রিসের  সঙ্গে মাল্টার দুরত্ব বেশী হওয়ায় এবং নানাবিধ চাপ থাকায় অনেক সময় দুতাবাসের কোন কর্মকর্তা বা রাষ্ট্রদুত মাল্টায় ভৃমন করেন না। এসব কারনে সেখানে বিভিন্ন অসুবিধা হচ্ছে বাংলাদেশিদের ।

মাল্টায় অবস্থানরত বাংলাদেশীরা এ বিষয়ে ইউরোপীয়ান প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক আবু তাহিরকে নিজেদের সমস্যাগুলো বলেন। তারা বলেন, মাল্টা থেকে গ্রীসের দুরত্ব বেশী হওয়ায় পাশ্ববর্তী দেশ ইতালী থেকে কনস্যুলেট করা হলে অনেকটা সুবিধা হতো।
 
পাশাপাশি মাল্টায় একটি স্থায়ী দুতাবাস স্থাপনের এবং রাষ্ট্রদুত নিয়োগের মাধ্যমে মাল্টার সঙ্গে  বাংলাদেশের ব্যবসা বানিজ্য ও অন্যান্য সুবিধা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে স্থানীয় বাংলাদেশীরা জানান।এসময় তারা প্রবাসীদের ভোটাধিকার ও কোন শর্ত ছাড়া সম্পূর্ণ বিনামুল্যে প্রবাসীদের মরদেহ দেশে প্রেরণের দাবি জানান সরকারের কাছে।

নিউজওয়ান২৪/এমএম

আরও পড়ুন
প্রবাসী দুনিয়া বিভাগের সর্বাধিক পঠিত