ঢাকা, ০৩ জুলাই, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি, সবাইকে মেনে নেয়ার আহ্বান কাদেরের

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১:২৩, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের-ছবি: সংগৃহীত

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের-ছবি: সংগৃহীত


বিদ্যুতের দাম কিছু বাড়ানো হচ্ছে দেশের মানুষের সুবিধা বাড়ানোর জন্যই। এ দাম বৃদ্ধিতে কিছু সময়ের জন্য সমস্যা হতে পারে, তবে এ সমস্যা সবাইকে মেনে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর হাতিরপুল এলাকায় শহিদ সেলিম-দেলোয়ার দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ঢাকা সিটিতে এখন আর পানি ও বিদ্যুতের হাহাকার নেই। দেশের ৯৬ শতাংশ মানুষ বিদ্যুতের সুবিধা ভোগ করছে। মুজিববর্ষে শতভাগ বিদ্যুৎ নিশ্চিত করা হবে। জনগণের সুবিধা বাড়ানোর জন্যই বিদ্যুতের কিছু দাম বাড়ানো হচ্ছে। কিছু সময়ের জন্য  সমস্যা হতে পারে। তারপরেও সমসাময়িক এ মূল্যবৃদ্ধি আপনারা মেনে নিবেন। এতে আপনাদের বিদ্যুতের ঘাটতি হবে না।

ডেঙ্গু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মশার কারণে গত বছর মানুষ অনেক সমস্যায় ছিল। ডেঙ্গু মশার জন্য এখন থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে। প্রধানমন্ত্রী সে কথা স্মরণ করে দিয়েছেন। তাই তিনি বলেছেন ভোট যেন মশায় খেয়ে না ফেলে। শেখ হাসিনা খারাপ লোকদের প্রতি শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। এ দেশ দেখিয়ে দিয়েছেন কোনো খারাপ লোকদের জায়গা নেই। প্রধানমন্ত্রী নিজের দলের লোকদের বিচার করেছেন। যারাই মাদক ব্যবসায় জড়িত, মাদকসেবী, দালাল ও সন্ত্রাসী তাদের ছাড় দেয়া হবে না।

জনগণের সমস্যা শোনার জন্য ঢাকার দুই মেয়র গণশুনানি ব্যবস্থা করছে জানিয়ে তিনি বলেন, ঢাকা দুই সিটিতে জনগণ তাদের সমস্যা তুলে ধরতে বা বলতে পারবে এই গণশুনানি মাধ্যমে। 

শহিদ সেলিম-দেলোয়ার দিবস প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, স্বৈরাচারী শাসক থেকে হঠাৎ করে মুক্তি পায়নি এ দেশ। রক্তক্ষয় সংগ্রামের বিনিময় আমাদের স্বাধীনতা অর্জন হয়েছে। তবে শহিদ সেলিম- দেলোয়ারের দিবস আমরা ভুলে যাচ্ছি। আমার চোখে পড়েনি এই দিবসগুলো কেউ ঘটা করে পালন করে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সম্মান জানাতে ও নতুন প্রজন্মকে প্রেরণা জোগাতে এই দিবস পালন করা উচিত। 

শহিদ সেলিম-দেলোয়ার পরিষদের সভাপতি ড. আব্দুল ওবায়দুদের সভাপতিত্বে এ সময় আরো উপ বলেন ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, মুক্তিযোদ্ধা ঐক্য মঞ্চের সভাপতি রুহুল আমিন মজুমদার, পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল প্রমুখ।

নিউজওযান২৪.কম/এমজেড

আরও পড়ুন