ঢাকা, ০৪ ডিসেম্বর, ২০২২
সর্বশেষ:

বিএনপি নেতার হামলায় আ.লীগ নেতার মৃত্যু

নেত্রকোণা সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ২০:০৩, ৯ অক্টোবর ২০২২  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত


প্রতিপক্ষের হামলায় আহত নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলার কুল্লাগড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সুব্রত সাংমার (৪০) মৃত্যু হয়েছে। 

শনিবার (৮ অক্টোবর) সুব্রত সাংমা’র চাচাতো ভাই কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য উপাধ্যক্ষ রেমন্ড আরেং এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে একই দিন দুপুর ১২টায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুব্রত সাংমার মৃত্যু হয়। তবে প্রতিপক্ষের হামলায় আহতের ১০ দিন পর তার মৃত্যু হয়।

সুব্রত সাংমা দুর্গাপুর উপজেলার কুল্লাগড়া ইউনিয়নের বহেরাতলী গ্রামের সুধীর মানখিনের ছেলে। তিনি এবার ইউপি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হন। এর আগে তিনি নৌকার চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি কুল্লাগড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন। তিনি সাবেক সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রয়াত প্রমোদ মানকিনের ভাতিজা।

নিহতের বড় ভাই বিজয় সাংমা জানান, পূর্ব বিরোধের জেরে বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাশিমণি বাজারে কুল্লাগড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব আবদুল আওয়াল ও চেয়ারম্যানের ভাই মো. শামিম আহমেদের নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সুব্রতর ওপর হামলা করা হয়। এ সময় আহত সুব্রতকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে একই দিন রাতেই তাকে নেওয়া হয় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

তিনি আরো জানান, তার মৃত্যুর খবর এলাকায় জানাজানি হলে উত্তাল হয়ে ওঠে দুর্গাপুর। উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করেন সুব্রতর অনুসারীরা।

দুগার্পুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিবিরুল ইসলাম জানান, শনিবার দুপুরে সুব্রত সাংমা হাসপাতালে মারা গেছেন। এ ঘটনায় সুব্রত সাংমার বোন কেয়া তজু বাদী হয়ে গত ৩০ সেপ্টেম্বর রাতেই দুর্গাপুর থানায় মামলা করেছিলেন। বর্তমানে শিবগঞ্জ বাজারে ৩০ জন পুলিশ মোতায়েন আছে এবং পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

নিউজওয়ান২৪.কম/রাজ