ঢাকা, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ

ফের নগ্ন আম্পায়ারিংয়ের শিকার বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০:৪৯, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২১:৪৩, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

২০১৫ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। মাঠে তখন বোলিংয়ে বাংলাদেশ এবং ভারত ব্যাটিংয়ে। বহু আশা নিয়ে বিশ্ব বাঙালির সবাই টিভির পর্দার সামনে বসে ছিলো শুধু টাইগারদের জয় দেখার জন্য। কিন্তু সেদিন মাঠে টিম টাইগারদের ১১ জনের বিপক্ষে যেন নেমেছিল ১৪ জনের একটি দল। সেদিন আম্পায়ারদের আশীর্বাদে বিরাট কোহলিরা শেষ হাসি হাসে। মুশফিক, সাকিবদের চোখের পানি এখনো ভারাক্রান্ত করে বাঙালিকে। ২২ গজের লড়াইয়ে সেইবার নগ্ন আম্পায়ারিংয়ের শিকার হয়েছিল বাংলাদেশ। টাইগারদের যোগ্যতার সুবিচার করেনি তখন আইসিসি (ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল)। আবারো সেই একই নগ্ন আম্পায়ারিংয়ের শিকার হলো বাংলাদেশ।

অধরা শিরোপার আশায় ২০১৮ এশিয়া কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ এবং ভারত। শুরুতে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামে টাইগাররা। ইনিংসের ৪১তম ওভারে কুলদীপ যাদবের করা বল একটু এগিয়ে খেলতে চেয়ে ছিলেন লিটন কুমার দাস। কিন্তু বল তার ব্যাট ফাঁকি দিয়ে চলে যায় উইকেটরক্ষক মহেন্দ্র সিং ধোনির। তিনি দ্রুতই বেলস ফেলে দেন। সে সময় লিটনের পা নিরাপদ জায়গাতেই ছিল। সেটা স্পষ্ট করেই দেখা যাচ্ছিল টিভি রিপ্লেতে। কিন্তু আম্পায়ার দিলেন আউট। তাতে লিটনের একটি অসাধারণ ইনিংস শেষ হয়ে গেল। ফিরে যাওয়ার আগে এ ডানহাতি করেন ১১৭ বলে ১২ চার ও ২ ছয়ে ১২১ রান।

তাহলে কি ফের নগ্ন আম্পায়ারিংয়ের শিকার বাংলাদেশ? এমন সিদ্ধান্তে ভারতের ১১ জনের চেয়েও অতিরিক্তি খেলোয়াড়দের দেখা গেলো। খেলোয়াড়রা হলেন টিভির দুই অ্যাম্পায়ার।

লিটনের এই ‘বিতর্কিত’ আউট নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় বয়ে যাচ্ছে।

বাপ্পী কুমার পাল নামে একজন লেখেন, এতদিন জানতাম স্ট্যাম্পিংয়ের সময় দাগের মধ্যে ব্যাটসম্যানের পা থাকলে সিদ্ধান্ত ব্যাটসম্যানের পক্ষে যায়। যেটাকে ক্রিকেটের ভাষায় বলে ‘বেনেফিট অব দ্যা ডাউট’। কিন্তু আজ মনে হচ্ছে এই সুবিধা কেবল ভারত পায়, ব্যাটসম্যান নয়।

সাংবাদিক রিয়াজ আহমদ তার স্ট্যাটাসে বলেন, ‘ভুল আম্পায়ারিং। লিটন আউট ছিল না। এই পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় এমন দুর্বল আম্পায়ারিংয়ের প্রতিবাদ করছি।’

আরেক সাংবাদিক শাহরিয়ার পলাশের অভিযোগ, ‘শুধু এই প্রতিযোগিতা নয়, আমরা সব সময়ই এমন প্রতারণার শিকার হচ্ছি।’

লিটন দাস আউট না হলেও তাকে জোর করে সাজঘরে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

কেউ কেউ তৃতীয় আম্পায়ার রড টাকারের ওপর ক্ষুদ্ধ হয়েছেন। ব্যাঙ্গ করে বলেছেন, বড় দলগুলো আম্পায়ার কিনে নেয়।

শরিফা শিরিন নামে একজন লেখেন, ভারত-বাংলাদেশ খেলায় সব সময় বাজে আম্পারিং হয়।

এদিকে, আজকের ম্যাচের আগে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের অবস্থান নিয়েও কটূক্তি করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম। বুধবার অঘোষিত সেমিফাইনালে পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়ে এশিয়া কাপের ফাইনাল নিশ্চিত করে নেয় টিম টাইগার। এরপর মাশরাফিদের বেয়াদব বলে সম্বোধন করে রিপোর্ট করেন ভারতের নিউজ ২৪ এর সাংবাদিক সাকশি জোশি।

এসব আচরণে আদৌ কী শিরোপা ছিনিয়ে আনতে পারবে বাংলাদেশ? উত্তরটা এখন সময়ই বলে দিবে!

নিউজওয়ান২৪/টিআর