ঢাকা, ২৯ অক্টোবর, ২০২০
সর্বশেষ:
আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

‘ধানমন্ডি’ নামকরণের ইতিহাস

প্রকাশিত: ১২:৩৮, ১১ জুলাই ২০২০  

রহস্যঘেরা এই জাহাজ বাড়ি, এখন শুধুই স্মৃতি...

রহস্যঘেরা এই জাহাজ বাড়ি, এখন শুধুই স্মৃতি...


ঢাকা শহরের অন্যতম আবাসিক এলাকা ‘ধানমন্ডি’। ঐতিহাসিক ৩২ নম্বর বাড়ি, লেক কিংবা রহস্যঘেরা জাহাজ বাড়িসহ নানা কারণে জায়গাটি সবার কাছেই পরিচিত।

পুরো ধানমন্ডিজুড়ে বর্তমানে শত শত অট্টালিকা দেখা গেলেও একসময় এটি ছিল ধানক্ষেত। এমনকি এর নামকরণের নেপথ্যেও রয়েছে নানা গল্প।

এক শতাব্দী আগেই ধানমন্ডি ছিল উলুখাগড়া আর ছন গাছের রাজ্য। দিগন্ত বিস্তৃত ধানক্ষেত, খালি মাঠ আর জলাশয় দেখা যেত এখানে। কালেভাদ্রে দু-একজন মানুষেরও দেখা মিলতো। কিন্তু এসব কথা ক’জন মানুষ বিশ্বাস করবেন? অথবা ব্রিটিশ আমলে এখানে বসত ধানের বিশাল বাজার, তাই বা কতটুকু বিশ্বাস হয়?

ইতিহাস বলছে, এর সবই আসলে সত্য। এটি আসলেই পুরোদস্তুর গ্রাম ছিল। সাতচল্লিশে দেশভাগের পরই ঢাকার অন্যান্য এলাকার মতো ধানমন্ডিতেও লোকালয় গড়ে উঠতে শুরু করে। এর আগে এই এলাকা ছিল সবুজে শ্যামলে ভরা এক বিস্তীর্ণ অঞ্চল। 

চল্লিশের দশকেও ধানমন্ডিতে কৃষিকাজ করা হতো পুরোদমে। তখন সম্পূর্ণ এলাকা ছিল ছন এবং উলুখাগড়ায় রাজ্য৷ তাই ধানমন্ডি নামকরণের সঙ্গেও জড়িয়ে আছে এই বিষয়গুলোই।

বাংলা ভাষায় ‘মণ্ডন’ শব্দটির অর্থ সাজসজ্জা বা অলংকার। পুরো এলাকা যখন সোনালি পাকা ধানে ছেয়ে যেত, তখন অসাধারণ দেখাতো। মনে হত যেন সোনালি অলংকারের চাদর দিয়ে কেউ এলাকাটিকে ঢেকে দিয়েছে। অনেকের মতে ধানের এই মণ্ডন থেকেই এলাকার নাম হয় ধানমন্ডি।

আবার কারো কারো মতে, আশেপাশে প্রচুর ধান উৎপাদন হওয়ায় ব্রিটিশ আমলে এখানে বসত ধানের বিশাল বাজার। সেই থেকে এই এলাকার নাম ধানমন্ডি হয়েছে বলেও অনেকে মনে করেন। জেনে রাখা ভালো, ফারসি পরিভাষায় ‘মন্ডি’ শব্দটির অর্থ হাট বা বাজার।

যে কারণই সঠিক হোক না কেন, এটা সঠিক যে ধানমন্ডির নেপথ্যে ধান জড়িয়ে আছে। এখানে একসময় ধান চাষ হতো, বাজার বসতো। অথচ এখন এগুলো হাস্যকর মনে হতে পারে!

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড