ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
সর্বশেষ:
আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

ছাত্রলীগে বিতর্কিতদের তালিকা: সভাপতি-সম্পাদকের হাতে

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:৪৯, ৪ ডিসেম্বর ২০১৯  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ছাত্রলীগে বিতর্কিতদের তালিকা কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যের হাতে এসে পৌঁছেছে।

কেন্দ্রীয় কমিটিতে পদ পাওয়া বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে সম্পৃক্ত এমন বিতর্কিত প্রায় ২৮ থেকে ৪০ জনকে বাদ দেয়া হতে পারে। 

মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগের সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক বিতর্কিতদের তালিকা নিয়ে দলের সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন। পরে তারা গণভবনে যান।

বিতর্কিত ছাত্রলীগের তালিকার বিষয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিমের কাছে জানতে চাইলে তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, বর্তমান ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক যাচাই-বাছাই, পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে কেন্দ্রীয় কমিটির মধ্যে বিতর্কিতদের তালিকা করেছে। এ নিয়ে কথা হয়েছে। কিন্তু কতজনের নাম আছে এ তালিকায় তা বলা সম্ভব না।  তবে ২০ জনের বেশি হবে। দু’ একদিনের মধ্যে  এ বিষয় সবাই জানতে পারবে। তবে প্রধানমন্ত্রী যে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন এটা তারই একটি অংশ। 

ছাত্রলীগের এক নেতা বলেন, ছাত্রলীগের মধ্যে পদে পাওয়া বিতর্কিতদের একটি তালিকা করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে বিবাহিত, বয়স বেশি, কেউ আবার বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে জড়িত ছিল, কারো বাবা বিএনপি-জামায়াতে, মাদকের সঙ্গে জড়িত, এদের নিয়ে একটি তালিকা করা হয়েছে। এ তালিকায় প্রায় ৩০ জনের মতো হতে পারে।

এ নিয়ে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে একাধিক বার ফোন দিলেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। 

ছাত্রলীগের শোভন ও রাব্বানীকে সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করার ১ বছর পর ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হয়। এ পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা অর্ধশত নেতা বাদ পড়া ও প্রত্যাশিত অনেকের পদ না পাওয়ায় ক্ষোভের বিস্ফোরণ ঘটে। ছাত্রলীগের একটি অংশ এ নিয়ে আন্দোলন করেন। তোপের মুখে পড়েন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। পদবঞ্চিত ছাত্রলীগের একটি অংশ কমিটিতে থাকা ১৭ জন বিএনপি জামায়াতসহ বিতর্কিত বলে অভিযোগ তুলে। এছাড়াও আরো ৮২ জনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করে। ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের বিক্ষোভের মুখে প্রাথমিকভাবে ১৯ জনকে চিহ্নিত করেছিল। সেই অভিযোগের তালিকা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে এখন আরো লম্বা হলো। অভিযোগও প্রমাণিত হলো।

নিউজওয়ান২৪.কম/এমজেড

আরও পড়ুন