ঢাকা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ডিসেম্বরে হেল্পলাইন ১৬২৬৩ এ কল করলেই ডাক্তারের পরামর্শ

এরশাদের ‘তেলেসমাতি খেইল’

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৯:০৭, ৬ ডিসেম্বর ২০১৮  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। সাবেক এই রাষ্ট্রপতির অসুস্থতা নিয়ে শুরু হয়েছিল নানা গুঞ্জন। কেউ বলেছিল তিনি অসুস্থ, যেতে পারেন সিঙ্গাপুর। আবার কেউ কেউ বলছিলেন দলীয় ও মহাজোটর চাপে আছেন এরশাদ। তবে সব জল্পনার অবসান কাটিয়ে হঠাৎই তেলেসমাতি খেইল দেখিয়ে বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) বনানী কার্যালয়ে উপস্থিত হন তিনি। 

এসময় বনানী কার্যালয়ের সামনে এসে গাড়িতে বসেই উপস্থিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে এরশাদ বলেন, ‘সব নির্ভর করে তোমাদের ওপর। কেউ পার্টি ছেড়ে যেও না, আমাকে প্রতিশ্রুতি দাও।’

এরশাদের অসুস্থতা নিয়ে গুঞ্জন ছিল তা স্বীকার করেছেন তিনি নিজেও। নেতা-কর্মীদেরকে এরশাদ বলেন, ‘আজ বলতে এসেছি, আমাকে কেউ দমিয়ে রাখতে পারবে না। আমি এগিয়ে যাব। আমার ব্লাড শর্টেজ রয়েছে, বাসায় যাচ্ছি। আমার বয়স হয়েছে, চিকিৎসা করতে দেবে না। বাইরে যেতে দেবে না। মৃত্যুকে ভয় করি না।’

মহাসচিব পরিবর্তন নিয়েও নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন এরশাদ। তিনি  বলেন, ‘পুরনো মহাসচিবকে (এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার) ভালোবাসতাম। নতুন মহাসচিবকে (মসিউর রহমান রাঙ্গা) তোমরা ভালোবেস। সে নতুন, তাকে তোমরা সাহায্য করো। বেঁচে আছি, বেঁচে থাকব। ২৭ বছর ধরে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরেছি, পার্টি ছাড়ি নাই।’ 

জাপা নেতা-কর্মীদের সাহস দিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘তোমাদের কোনো ভয় নেই। জাপা তোমাদের মাঝে বেঁচে থাকবে। জাপা চিরদিন নির্বাচন করেছে, এবারও করবে।’

এ সময় উপস্থিত জাপার নেতা-কর্মীরা ‘এরশাদের কিছু হলে, জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে।’, ‘অ্যাকশন, অ্যাকশন, ডাইরেক্ট অ্যাকশন।’, ‘আওয়ামী লীগের দালালেরা, হুঁশিয়ার সাবধান।’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন। 

উল্লেখ্য, সর্বশেষ গত ২০ নভেম্বর মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার অনুষ্ঠানে কথা বলেন তিনি। এরপর তাকে আর কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি কিংবা গণমাধ্যমে দেখা যায়নি। এর মাঝে তিনি কখনো বাসায় কখনও সিএমএইচ-এ ভর্তি হয়েছেন।

নিউজওয়ান২৪/এএস