ঢাকা, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯
সর্বশেষ:
জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

এরশাদবিহীন জাপা জয় পেতে মরিয়া

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:১৭, ২ অক্টোবর ২০১৯  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ (সদর) আসনে নির্বাচন নিয়ে জমে উঠেছে রংপুরের রাজনীতি। এই আসনে উপনির্বাচন আগামী ৫ অক্টোবর। 

আসনটি দীর্ঘ ২৮ বছর ধরে জাতীয় পার্টির দখলে ছিল। তাই এবার এরশাদবিহীন প্রথম কোনো জাতীয় নির্বাচনে জয় পেতে মরিয়া জাপা। 

জাপার প্রার্থী এরশাদপুত্র রাহগীর আল মাহি সাদসহ ছয়জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এবারের নির্বাচনে। এর মধ্যে আলোচনায় রয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী এরশাদের ভাতিজা ও জাপার সাবেক এমপি আসিফ শাহরিয়ার এবং বিএনপির রিটা রহমান। নির্বাচনী এলাকা ঘুরে সাধারণ ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, খোদ পরিবারের মাঝে বিরোধ এবং সমর্থন দেয়া আওয়ামী লীগনির্ভর হয়ে ওঠা জাপার সামনে এখন অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার লড়াই।

এবারের উপনির্বাচনে এরশাদ পরিবার থেকে আসিফ শাহরিয়ারের প্রার্থী হওয়া ও স্থানীয় জাপার একটি অংশ বিপক্ষে থাকাসহ সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ভোট বর্জনের ঘোষণা জাপা প্রার্থী সাদের জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দেখা দিয়েছে। সেই সঙ্গে রয়েছেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রিটা রহমান। গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রয়াত এরশাদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ৫৩ হাজার ভোট পেয়েছিলেন তিনি। এবার এরশাদ নেই, সেই সঙ্গে জাপার বিভেদকে কাজে লাগিয়ে ফল ঘরে তুলতে তৎপর বিএনপি।

এদিকে প্রায় এক সপ্তাহ সময় ধরে বৈরী আবহাওয়ায়ও থেমে নেই প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ। বৃহস্পতিবার সকালের পর বন্ধ হয়ে যাচ্ছে আনুষ্ঠানিক প্রচার। শেষ মুহূর্তে এসে প্রচারে তারা ব্যস্ত সময় পার করছেন।

এলাকা ঘুরে জানা যায়, প্রতিদ্বন্দ্বী ছয় প্রার্থীর মধ্যে জাপার সাদ এরশাদের লাঙল, স্বতন্ত্র প্রার্থী আসিফ শাহরিয়ারের মোটরগাড়ি ও বিএনপির রিটা রহমানের ধানের শীষের আলোচনা সর্বত্র। শেষ মুহূর্তে এসে তিন প্রার্থী একে অপরের দুর্বলতাকে পুঁজি করে ভোটারদের মন জয় করতে চাইছেন। কেউ কেউ তুলে ধরছেন আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগও।

অন্তঃকোন্দল কিছুটা থাকলেও জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জেলার সাধারণ সম্পাদক এস এম ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীর বলেন, ‘জাতীয় পার্টির মধ্যে কোনো বিভেদ নেই। দু-একজন হয়তো নির্বাচনী কাজ করছেন না। তাতে অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। আওয়ামী লীগ জাতীয় পার্টির প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার ঘোষণা দিয়েছে। তাদের কার্যক্রম দৃশ্যমান না হলেও সাদ এরশাদের পক্ষেই তারা কাজ করছে। সাধারণ মানুষের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। জয়ের ব্যাপারে আমরা শতভাগ আশাবাদী।’

নিউজওযান২৪.কম/এমজেড