ঢাকা, ১১ আগস্ট, ২০২০
সর্বশেষ:
সেহরি ও ইফতারের সময় সূচি : ঢাকায় প্রথম রোজার সেহরির শেষ সময় রাত ৪টা ৫ মিনিটে আর ইফতার হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৮ মিনিটে। আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুম (০১৭০০৭০৫৭৩৭) অথবা হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫, ০১৯৪৪৩৩৩২২২, ০১৫৫০০৬৪৯০১–০৫) যোগাযোগ করা যাবে। এ ছাড়া করোনাসংক্রান্ত তথ্য জানতে বা সহযোগিতা পেতে স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ এবং ৩৩৩ নম্বরে ফোন করা যাবে। অনলাইনে করোনা নিয়ে যোগাযোগ করতে আইইডিসিআরের ই-মেইল [email protected] এবং ফেসবুক পেজে (Iedcr,COVID19 Control Room) যোগাযোগ করা যাবে। জরুরি প্রয়োজনে কল করুন- ৯৯৯

‘আত্মবিশ্বাসী’ বাংলাদেশ বনাম ‘ক্ষুধার্ত’ আফগান  

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:০৮, ২৪ জুন ২০১৯  

বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান (ফাইল ছবি)

বাংলাদেশের দ্বাদশ বিশ্বকাপের যাত্রাটা ছিল স্বপ্নের মতো। শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকাকে উড়িয়ে দিয়ে শুরু হয় টাইগারদের বিশ্বকাপ মিশন। 

এরপর একে একে আরও পাঁচ ম্যাচ খেলে টাইগাররা। তবে জয় পায় শুধু একটিতে আর বৃষ্টিতে ভেস্তে যায় আরও একটি ম্যাচ। তিন ম্যাচ হারলেও সহজে জিততে দেয়নি প্রতিপক্ষকে।

নিউজিল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচে দারুণ আধিপত্য বিস্তার করেছিল টাইগাররা। শেষ পর্যন্ত হারতে হয় মাশরাফিদের। হেরেছে ইংল্যান্ডের কাছেও তবে সেটিও লড়াই করে। নিজেদের সবশেষ ম্যাচে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে দারুণভাবে সামলায় তামিম-মুশফিক-মাহমুদউল্লাহরা। খেলে নিজেদের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসও।

বাংলাদেশের এবারের প্রতিপক্ষ এশিয়ান জায়ান্ট আফগানিস্তান। সোমবার (২৪ জুন) সাউথাম্পটনের রোজ বোলে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায় মুখোমুখি হবে দুই দল। আফগানদের শেষ চারে খেলার স্বপ্ন শেষ হয়ে গেলেও টাইগারদের সামনে রয়েছে সুবর্ণ সুযোগ। আর সেই সুযোগ কাজে লাগাতে হলে আজ হারাতে হবে রশিদ-মুজিব-নবীদের।

এদিকে বাংলাদেশের মতোই বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ছয় ম্যাচ খেলেছে আফগানিস্তান। দলটির জয়ের সংখ্যা শূন্য। তাই জয় পেতে মরিয়া ক্ষুধার্ত আফগানিস্তান। বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের প্রথম জয়ের ক্ষুধা মেটাতে চায় আফগান অধিনায়কও। 

আফগানিস্তানের শেষ ম্যাচ ছিল ভারতের বিপক্ষে। সে ম্যাচে শক্তিশালী ভারতকে নাকানি চুবানি খাইয়ে দেয় যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি। ত্রিভুজ স্পিন জালে আটকে যায় ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। বাংলাদেশের বিপক্ষেও রশিদ, মুজিব আর নবী হয়ে উঠতে পারে ভয়ঙ্কর। 

তবে বিশ্বকাপে ব্যাট হাতে বেশ সফল বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানরা। পাঁচ ম্যাচ ব্যাট চালিয়ে দুই সেঞ্চুরি, দুই অর্ধশতক পায় বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। আছেন সর্বোচ্চ রান সংগ্রকারীর তালিকায়। সেঞ্চুরির দেখা পান টাইগার উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহীমও। এছাড়া তামিম, সৌম্য, লিটনম মাহমুদউল্লাহ সবাই আছেন দারুণ ফর্মে। 

দুই দলের মুখোমুখি সমীকরণে আফগানদের থেকে এগিয়ে বাংলাদেশ। ওডিআইতে এখন পর্যন্ত দুই দলের লড়াই হয়েছে সাত বার। যেখানে বাংলাদেশের জয় ৪টি আর আফগানদের ৩টি। বিশ্বকাপেও একবার দেখা হয় নবীদের বিপক্ষে। একমাত্র ম্যাচটিতে জয় তুলে নেয় মাশরাফি বাহিনী। 

বিশ্বকাপ মঞ্চে বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত জয় পেয়েছে ১৩ ম্যাচে আর হেরেছে ২৩টিতে। বিপরীতে আফগানদের জয় একটি আর পরাজয় ১১টি। বাংলাদেশের ৩০০ প্লাস স্কোর রয়েছে ৪টি। যেখানে আফগানদের কোটা শূন্য। সেঞ্চুরির দিকেও অনেক এগিয়ে টাইগাররা। বাংলাদেশের পাঁচ সেঞ্চুরির বিপরীতে হযরতউল্লাহ-হাশমতউল্লাহদের সেঞ্চুরিও শূন্য।

নিজেদের শেষ পাঁচ ম্যাচের মধ্যে বাংলাদেশ জয় পেয়েছে দুটি আর হেরেছে তিনটিতে। অপর দিকে টানা পাঁচ ম্যাচই হেরেছে আফগানিস্তান। শক্তি আর অভিজ্ঞতায় আফগানদের তুলনায় যোজন যোজন এগিয়ে টাইগাররা। তাই মাঠের লড়াইয়ে সেটিই প্রমাণ করতে মরিয়া মাশরাফি বাহিনী।

নিউজওযান২৪.কম/এসডি