News One24 logo
Sena Kalyan Sangstha
bangla fonts
১২ বৈশাখ ১৪২৫, বৃহস্পতিবার ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ৯:৫৬ পূর্বাহ্ণ
facebook twitter google plus rss
সর্বশেষ খবর
ইন্টারনেট দুনিয়ায় ঝড় তোলা মেয়েটি কে? (ভিডিও) খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে নির্বাচন হতে দেয়া হবে না: বিএনপি ‘আনসাররা অস্ত্র ঠেকিয়ে আমাদের ভিটেমাটি দখল করেছে’ আসামে এনআরসি’র তালিকায় নেই ৭০ শতাংশ বাঙালি! শেখ হা‌সিনার অধীনে নির্বাচ‌নে বিএন‌পি যাবে না: খালেদা জিয়া

মির্জাপুর আসনে নৌকার গণজাগরণে ব্যাপক তৎপর ৫ নেতা


০১ অক্টোবর ২০১৭ রবিবার, ০৭:৪৭  পিএম

তাজা খবর ডেস্ক


মির্জাপুর আসনে নৌকার গণজাগরণে ব্যাপক তৎপর ৫ নেতা

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে টাঙ্গাইল ৭ মির্জাপুর আসনে নৌকার পক্ষে গণজাগরণ সৃষ্টিতে ব্যাপক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন নতুন প্রজন্মের তিনজনসহ পাঁচ নেতা। দিন রাত ছুটে বেড়াচ্ছেন মাঠে প্রান্তরে।

তারা হলেন- সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. একাব্বর হোসেন এমপি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মির্জাপুর কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতি লি. এর সভাপতি মীর শরীফ মাহামুদ, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মেজর (অব) খন্দকার আব্দুল হাফিজ, জেলা যুবলীগ সহসভাপতি টাঙ্গাইল চেম্বার অব কমার্সের সাধারণ সম্পাদক খান আহমেদ শুভ এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ওয়াহীদ ইকবাল।

একাব্বর হোসেন এমপি নির্বাচনকে সামনে রেখে সাংগঠনিক এবং ব্যক্তিগতভাবেও জোর তৎপরতা শুরু করেছেন। তিনবারের এমপি হয়ে এলাকায় যেসব উন্নয়ন কাজ করেছেন তা প্রায় সর্বক্ষেত্রে তুলে ধরে নিজের এবং নৌকার পক্ষে গণজাগরণের চেষ্টা করে যাচ্ছেন। তিনি ২০০১, ২০০৮ এবং ২০১৪ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়ে এমপি হয়েছেন। তিনি দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন চারবার।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হলেন মীর শরীফ মাহামুদ। দীর্ঘ প্রায় ৪০ বছরের রাজনৈতিক জীবন এই নেতার। তৃণমূল পর্যায় থেকে উঠে আসা এই নেতার যাবতীয় কর্মকাণ্ডই রাজনীতিকে ঘিরে। রাজনৈতিক জীবনে সহযোদ্ধাদের বিজয়ী করার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছেন তিনি। কিন্তু তিনি নিজে এখনো সেই কাঙিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেননি। তবে তিনি হাল ছাড়েননি। প্রতিনিয়তই দলের কাজে ছুটে চলেন এলাকার সর্বত্র।

নতুন প্রজন্মের এক আলোচিত নেতা হলেন টাঙ্গাইল জেলা যুবলীগের সহসভাপতি খান আহমেদ শুভ। আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি নৌকার পক্ষে গণজাগরণ সৃষ্টিতে সার্বক্ষণিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। তার তৎপরতায় ইতোমধ্যে তিনি মির্জাপুরে সর্বমহলে আলোচনায় এসেছেন। তার বাবা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক। বাবার পথেই হাটছেন খান আহমেদ শুভ।

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা হলেন খন্দকার আব্দুল হাফিজ। চাকরি থেকে অবসরে এসেই আওয়ামী লীগের রাজনীতি শুরু করেন। রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি ব্যক্তিগতভাবেও তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। অল্প সময়ের মধ্যে তিনি আলোচনায় এসেছেন।

তৃণমূল পর্যায় থেকে উঠে আসা আরেক তরুন নেতা হলেন সৈয়দ ওয়াহীদ ইকবাল। ছাত্রলীগ যুবলীগ পার করে এখন আওয়ামী লীগ নেতা। সার্বক্ষণিক রাজনীতি নিয়ে সময় কাটান তিনি। গত নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়ে আলোচনায় এসেছিলেন তিনি। এবারও চাইবেন বলে সেই লক্ষ্যে কাজ করছেন।

নিউজওয়ান২৪.কম

নিউজওয়ান২৪.কম এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন: